‘হাতে চুড়ি পরে বসে আছি নাকি!’ রাজ্যপালের ‘রাষ্ট্রপতি শাসন’ মন্তব্যে ক্ষুব্ধ মমতা

0
494
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সন্দেশখালির ঘটনা নিয়ে এই মূহুর্তে বিতর্কের শিখরে রয়েছে বাংলা। এতোই জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে যে রাজ্যপালকে দিল্লি গিয়ে বৈঠক করতে হয়েছে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে। রাজ্যপালের এই বৈঠক একটি প্রশ্নকে জাগিয়ে তোলে যে কোনওভাবে কি বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হতে চলেছে? এই প্রসঙ্গে পরোক্ষে ইঙ্গিতও দেন রাজ্যপাল। বলেন, ‘হতে পারে, কেন্দ্রীয় সরকার ভেবে দেখবে!’ রাজ্যপাল কেশরিনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে মোদী-শাহের বৈঠককে কোনও অংশেই ভালোভাবে নেননি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রসঙ্গে তিনি মন্তব্য করেন, ‘রাষ্ট্রপতি শাসনের কথা বলা খুব সহজ, কিন্তু করা অতো সস্তা নয়। আগে নিজেদের দলকে ( বিজেপি) নিয়ন্ত্রণ করুক। আমরা কেউ হাতে চুড়ি পরে বসে নেই’!

রাজ্যপাল কেশরিনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘সংঘাত’ নতুন কিছু নয়। এর আগেও অনেকবারই বিভিন্ন ইস্যুতে রাজ্যপালের বিরোধিতা করেছেন মমতা। সম্প্রতি, রাজ্যপাল জানিয়েছিলেন, নির্বাচনোত্তর হিংসায় রাজ্যে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেই মন্তব্যের বিরোধিতা করে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, বাড়িয়ে বলছেন রাজ্যপাল, ১০ জন খুন হয়েছে, আর উনি বলছেন ১২ জন। রাষ্ট্রপতি শাসনের মন্তব্য নিয়েও বিক্ষোভ দেখান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারির প্রসঙ্গে সম্প্রতিই কেশরিনাথ ত্রিপাঠী মন্তব্য করেন, ‘হতে পারে, যখন দাবি উঠবে তখন কেন্দ্রীয় সরকার ভেবে দেখবে। কিন্তু আমি রাষ্ট্রপতি শাসন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কোনও আলোচনা করিনি।’ রাজ্যপালের এই মন্তব্যের পর কার্যত রে রে পড়ে যায় গোটা রাজ্য়ে এবং দেশে। অনেকেই আশঙ্কা করেন, যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তাতে রাষ্ট্রপতি শাসন হয়তো সময়ের অপেক্ষা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here