bengali news mamata hemant

Highlights

  • হেমন্ত সোরেনের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন
  • মমতার উত্তরবঙ্গ সফর ছিল। যা কয়েকদিনের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে
  • উপস্থিত থাকবেন ওয়েনাড়ের সাংসদ তথা কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধীও

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মহারাষ্ট্রে নতুন সরকার গঠনের সময়ও উদ্ধব ঠাকরের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে ডাক পেয়েছিলেন। কিন্তু নানা কারণে সেখানে পৌঁছানো হয়ে ওঠেনি। তবে ঝাড়খণ্ডে বিজেপির হার কিছুটা স্বস্তির হাওয়া এনে দিয়েছে তৃণমূল শিবিরে। ফলে পড়শি রাজ্যের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন বলেই জানা যাচ্ছে। বুধবারই মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয় সূত্রে এই খবরে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে।

আগামী ২৯ ডিসেম্বর ঝাড়খণ্ডের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন শিবু সোরেন পুত্র হেমন্ত সোরেন। ফলপ্রকাশের দিন মহাজোট জয়ী ঘোষণা হওয়ার আগেই হেমন্তকে জয়ের শুভেচ্ছা জানিয়ে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন মমতা। প্রত্যুত্তরে ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন হেমন্তও। এবার সেই বন্ধুত্বই এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পালা। জোট সরকারের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য মমতাকে আমন্ত্রণ জানান হেমন্ত। সেই আমন্ত্রণে সাড়া দেন তৃণমূল সুপ্রিমো। যদিও এর মাঝে মমতার উত্তরবঙ্গ সফর ছিল। যা কয়েকদিনের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর।

একই সঙ্গে এই শপথের মঞ্চে উপস্থিত থাকবেন ওয়েনাড়ের সাংসদ তথা কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধীও। ভোটে জেতার পরই সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীর কাছে গিয়ে ব্যক্তিগতভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন হেমন্ত। তবে স্বাস্থ্যজনিত কারণে সনিয়া উপস্থিত না থাকলেও রাহুল আসবেন বলে জানা গিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে অবিজেপি মুখ্যমন্ত্রীদেরও এই মঞ্চে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন হেমন্ত সোরেন। ফলে রাঁচিতে নতুন মুখ্যমন্ত্রীর শপথগ্রহণের মঞ্চ ফের বিরোধীদের কাছে আসার একটা মাধ্যম হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ঝাড়খণ্ড বিধানসভা ভোটে কার্যত ধরাশায়ী হয়েছে বিজেপি। গত বারের চেয়ে ১২টি আসন কমেছে। জামশেদপুর-পূর্বে হেরেছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসও। ২৫টি আসনেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বিজেপিকে। সেখানে বিরোধী জোটে জেএমএম ৩০টি, কংগ্রেস ১৬টি এবং আরজেডি ১টি আসন নিয়ে ৪৭টি আসন পেয়েছে মহাজোট। ৮১ আসনের রাজ্যে সরকার গড়তে প্রয়োজন হয় ৪১টি আসন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here