kolkata news
Highlights

  • দলীয় কর্মিসভা করতে এসে মালদার নেতা-কর্মীদের কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
  •  কর্মিসভার মঞ্চ থেকেই জেলার প্রথম সারির নেতাদের নাম ধরে ধরে সতর্ক করেন তৃণমূল সুপ্রিমো
  • পুর নির্বাচনের জন্য দুই পুরসভার দায়িত্ব ভাগ করে দেন তিনি


নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদা:
পুরসভা নির্বাচনের আগে দলীয় কর্মিসভা করতে এসে মালদার নেতা-কর্মীদের কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কর্মিসভার মঞ্চ থেকেই জেলার প্রথম সারির নেতাদের নাম ধরে ধরে সতর্ক করেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ পুর নির্বাচনের জন্য দুই পুরসভার দায়িত্ব ভাগ করে দেন তিনি৷ বিধানসভা নির্বাচনের জন্যও এলাকা ভাগ করে বিভিন্ন নেতার হাতে সেই দায়িত্ব তুলে দেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷

কর্মিসভার মঞ্চ থেকে তিনি বলেন, পুরো জেলার দায়িত্ব কাউকে একা নিতে হবে না৷ আমি সবাইকে দায়িত্ব ভাগ করে দিচ্ছি৷ কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরি ইংরেজবাজার পুরসভার ১, ৪, ৫, ৭, ৮, ৯, ১০, ১২, ১৯ ও ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্ব পালন করবেন৷ নীহাররঞ্জন ঘোষ ৩, ৬, ১৫, ১৬, ১৭ ও ২৩ এই ওয়ার্ডগুলির দায়িত্ব নেবেন৷ দুলাল সরকার ও নরেন্দ্রনাথ তিওয়ারি ১৪, ২০, ২১, ২৪, ২৫, ২৭, ২৮ ও ২২-২৬ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্ব নেবেন৷ অম্লান ভাদুড়ি ১১ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ড এবং সুমালা আগরওয়াল ও আশিস কুণ্ডুকে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্ব তুলে দেন৷ পাশপাশি তিনি বিধানসভা এলাকার ক্ষেত্রেও দায়িত্ব ভাগ করে দেন৷ কৃষ্ণেন্দুবাবুকে হবিবপুর ও গাজোল, সাবিত্রী মিত্রকে মানিকচক, মোথাবাড়ি দায়িত্ব তিনি নজরুল হকের হাতে তুলে দেন।

এদিনের কর্মিসভা থেকে তিনি বিরোধীদের তীব্র সমালোচনা করেন৷ বলেন, তিনি আগেই বলেছিলেন, বামফ্রন্ট-কংগ্রেস-বিজেপি সবাই এক৷ গত পঞ্চায়েত ও লোকসভা নির্বাচনে মানুষ তা বুঝতে পেরেছে৷ এখন কেন্দ্রীয় সরকার এনআরসি, সিএএ করে মানুষের মধ্যে বিভাজন তৈরি করতে চাইছে৷ যে সরকার দিল্লির মতো মিউনিসিপ্যালিটি সামলাতে পারে না তারা নাকি দেশ চালাবে৷ তাঁর শরীর শেষ বিন্দু রক্ত থাকাকালীন তিনি বাংলার জন্য লড়াই চালিয়ে যাবেন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here