kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা পরিস্থিতি নবান্ন ও রাজভবনের দূরত্ব বাড়িয়ে দিয়েছে অনেকখানি। রেশন বন্টন নিয়ে একাধিকবার পত্র যুদ্ধ ও টুইট যুদ্ধ চলেছে মমতা-ধনকড়ের। এরই মাঝে রাজ্যের দিকে চোখ রাঙাতে শুরু করেছে আমফান। যদিও তা সামাল দিতে চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখছে না সরকার। সেই প্রেক্ষিতেই এবার ব্যতিক্রমী রূপে ধরা দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রীতিমতো বাংলায় টুইট করে তিনি ভূয়শী প্রশংসা করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার এ দিনের টুইট বিগত কয়েক মাস ধরে চলা যুদ্ধ পরিস্থিতিতে বয়ে আনল কিছুটা ঠান্ডা বাতাস।

এদিন রাজ্যবাসীকে সতর্কবার্তা দেওয়ার পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করে বাংলাতে টুইট করে তিনি লেখেন, ‘সাইক্লোন আমফানের প্রভাবকে নিয়ন্ত্রণ করার ব্যাপারে দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগ প্রশংসনীয়। এই ঝড় ২০ মে তটরেখা অতিক্রম করবে।’ পাশাপাশি ঝড়ের বিস্তারিত ব্যাখ্যায় তিনি আরও লেখেন, ‘এই সাইক্লোনে পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং কলকাতা সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবার সম্ভাবনা প্রবল।’

উল্লেখ্য, আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী বুধবার বিকেল অথবা সন্ধ্যে নাগাদ উপকূলে আছড়ে পড়বে ভয়াবহ এই ঘূর্ণিঝড়। সে পরিস্থিতি সামাল দিতে ইতিমধ্যেই উপকূলবর্তী অঞ্চল থেকে মানুষজনকে সরিয়ে নিয়ে গেছে রাজ্য সরকার। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করে ইতিমধ্যেই বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরকে সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মানুষজনকে ঘরের বাইরে পা না রাখার অনুরোধ করার পাশাপাশি, ঝড়ের মধ্যে দুর্গত অসহায় মানুষগুলোর জন্য ত্রাণ শিবিরে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে সব রকম ভাবে প্রস্তুত হয়েছে সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here