kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্যারাকপুর: ২০১৮ পঞ্চায়েত নির্বাচনের রক্তাক্ত ছবি যে বিরোধীদের হাতে আক্রমণের অস্ত্র তুলে দেবে তা আগে থেকেই আন্দাজ করা গিয়েছিল। এবার সেই অস্ত্রেই শাসকদলকে ঘায়েল করলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুরে ভারতের ছাত্র ফেডারেশন আয়োজিত ছাত্র উৎসব ২০১৮তে প্রধান বক্তা হিসেবে যোগ দিতে এসে সুজন বলেন, ”রাজ্যে লুম্পেনরা রাজনীতিতে শাসকদলের নেতৃত্ব দিচ্ছে।”

এদিনের সভায় সুজনের নিশানায় ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে গণতন্ত্র জয়ে মমতার উচ্ছ্বাসকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ”রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় কর্ণাটক যাচ্ছেন, ভালো কথা। তিনি বলেছেন কর্ণাটকে গনতন্ত্রের জয় হয়েছে। কিন্তু বাংলায় কী হয়েছে পঞ্চায়েত নির্বাচনে? সে কথা কি মুখ্যমন্ত্রী বলবেন কর্ণাটকে গিয়ে? অন্য রাজ্যের বহু মুখ্যমন্ত্রীই কর্ণাটকে আমন্ত্রিত। সেরকমই আমাদের মুখ্যমন্ত্রীও ওখানে যাবেন। রাজনীতিতে এখন লুম্পেনদের নেতৃত্ব চলছে। লুম্পেনদের মাথায় একদিকে শাসকদলের শীর্ষ নেতৃত্বের হাত এবং অন্যদিকে রয়েছে পুলিশের হাত।” বলে রাখা ভাল, আগামীকাল কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন জেডিএস নেতা কুমারস্বামী। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বেঙ্গালুরু উড়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন মুখ্যমন্ত্রীকে হিটলারের সঙ্গেও তুলনা করেন সুজনবাবু। তিনি বলেন, ”হিটলারও চেয়েছিলেন ১০০ শতাংশ আসনে জয়। আমাদের মুখ্যমন্ত্রীও সেটাই চান। হিটলার ৯৯ শতাংশ আসনে জিতেছিলেন। এবার পঞ্চায়েত ভোটে ৯৫% আসনে জিতেছে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস। ফলে হিটলারের থেকে খুব বেশি পিছিয়ে নেই মমতা। হিটলারের মতোই পরিনতি হবে মমতার।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here