ডেস্ক: দক্ষিণ দিনাজপুরের হেমতাবাদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মঞ্চে দুই মহিলার আচমকা উঠে যাওয়া নিয়ে দিনদুয়েক আগেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায়। প্রশ্ন উঠে যায় নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়গুলি নিয়ে। ফলে এবার মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা আরও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন। পরবর্তী সময়ে এই ধরণের কোনও অনভিপ্রেত ঘটনার সম্মুখীন যাতে না হতে হয় সেই জন্য মমতার ‘ডি-জোন’-এর সুরক্ষা আরও বাড়ানো হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রীর মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকার জন্য জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পেয়ে থাকেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই নিরাপত্তা বলয়ের একদম ভিতরের ‘ডি-জোনে’ থাকেন মুখ্যমন্ত্রী। এ, বি এবং সি জোন প্রধানত রাজ্য পুলিশ দ্বারাই পরিবেষ্টিত থাকে। একদম শেষে অর্থাৎ ডি-জোনে থাকেন মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীরা। নবান্ন সূত্রে খবর, এই ডি-জোনের নিরাপত্তাই আরও মজবুত করা হবে। বাড়ানো হবে পুরুষ ও মহিলা পুলিশকর্মী, মঞ্চে ওঠার যে দু’পাশে সিঁড়ি থাকে তাতেও আলাদা করে পুলিশ মোতায়েন করা হবে। এছাড়াও যাতে কেউ বাঁশ দিয়ে গলে যেতে না পারেন সেই কথা মাথায় রেখে দুটি বাঁশের মধ্যে ফাঁক কম করারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার হেমতাবাদের জনসভায় মুখ্যমন্ত্রীর সভামঞ্চে উঠে পড়েন দুই তরুণী৷ নিরাপত্তারক্ষীরা ছুটে আসতেই জোরজবরদস্তি তাঁরা বসে পড়েন সেখানে৷ ধস্তাধস্তি করেও সরানো যায় না৷ চেঁচামেচি করে জুড়ে দেন কান্না৷ এই ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী কিছুটা বিরক্তি প্রকাশ করেই তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশদের কড়া ভাষায় ধমক দেন। এরপরই ঘটনাস্থলে গিয়ে সম্পূর্ণ ঘটনাটির পূণনির্মান করে নবান্নকে রিপোর্ট জমা দেয় পুলিশ। এই রিপোর্টের প্রেক্ষিতেই মুখ্যমন্ত্রীর ডি-জোনের নিরাপত্তা আরও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় নবান্ন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here