kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি : নন্দীগ্রাম মামলায় জরিমানা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। জরিমানা করা হল ৫ লক্ষ টাকা। সেই সঙ্গে মামলা থেকে সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক চন্দ।

ads

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে তৃণমূলের প্রার্থী হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই কেন্দ্রে পদ্ম প্রতীকে দাঁড়িয়েছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। হাজার দুয়েক ভোটে মমতাকে পরাজিত করেন শুভেন্দু। ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হন মমতা। সেই মামলা থেকেই সরে দাঁড়ালেন বিচারপতি কৌশিক। তার আগে অবশ্য মমতার ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করেন।

কেন জরিমানা দিতে হবে মমতাকে? আদালত সূত্রে খবর, দিন কয়েক আগে বিচারপতি কৌশিক চন্দের সঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন তৃণমূলের ডেরেক ও ব্রায়েন। বিজেপি ঘনিষ্ঠতা নিয়ে টুইট করেছিলেন সাংসদ তৃণমূলের মহুয়া মৈত্রও। আদালতের বাইরে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন আইনজীবীরা। ভার্চুয়াল শুনানিতে স্বয়ং মমতা বলেছিলেন, আপনি বিজেপি ঘনিষ্ঠ। এসব কারণেই জরিমানা করা হয় মমতার।

এদিন মামলা থেকে সরে যাওয়ার আগে মমতার জরিমানা করেন বিচারপতি। তিনি বলেন, বিচারপতি সর্বদা নিরপেক্ষ থাকেন। পেশার তাগিদে তাঁকে বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয়। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে, তাঁর বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে। এই মামলার বিচার করা তাঁর সাংবিধানিক কর্তব্যের মধ্যেও পড়ে বলে জানান তিনি।

তার পরেও সরে দাঁড়ালেন কৌশিক। তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই বহু সুবিধাবাদী মানুষ এ ব্যাপারে কথা বলতে শুরু করেছেন। আমি মামলা না ছাড়লে তাঁরা বিতর্ক জিইয়ে রাখবেন। মামলা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে না। এটা হতে দেওয়া যায় না। তাই মামলা থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি।      

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here