kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধিপিকের ওপর ভরসা নয়। এবার তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনে নিজেই উদ্যোগী হলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, সেই কারণেই ২১ জুলাই শহিদ দিবস পালনের পর কোনও একদিন দিল্লি যাবেন তিনি। দিন কয়েক কাটাবেনও রাজধানীতে। সেই সময়ই মমতা বিরোধী ঐক্যে শান দেবেন বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের।

ads

প্রথমে এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার, পরে এম কে স্ট্যালিন সহ কয়েকজন বিজেপি-বিরোধী নেতার সঙ্গে বৈঠক শেষে পিকে বৈঠক করেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি, প্রিয়ঙ্কা গান্ধি বঢরা এবং বেণুগোপালের সঙ্গে। দিল্লির একটি সূত্রের খবর, পিকেকে কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন রাহুল।

বিজেপিকে হঠাতে নয়া দল গড়ার একটা প্রাথমিক পরিকল্পনা নিয়েছিলেন পিকে। পরে কংগ্রেসে যোগের প্রস্তাবে আশার আলো দেখছেন তিনি। কারণ, দুর্বল হলেও ভারতের সমস্ত প্রদেশে সংগঠন রয়েছে কংগ্রেসের। আর, তাছাড়া দিল্লিতে বিজেপির বিকল্প কংগ্রসেই। তাই কংগ্রেসে যোগ দিলে পিকের পক্ষে বিজেপি তাড়ানো হবে অনায়াস।

পিকে কংগ্রেসের সঙ্গে বৈঠক করতেই সিঁদুরে মেঘ দেখতে শুরু করেন তৃণমূল নেতৃত্ব। পর্যবেক্ষকদের মতে, সেই কারণেই আর পিকের ওপর ভরসা করছেন না তাঁরা। তাই স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী দিল্লি যাচ্ছেন। দীর্ঘ দিন সাংসদ থাকার দরুণ দিল্লিতে একটা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে মমতার। সেখানে তিনি বিভিন্ন আঞ্চলিক দলের নেতানেত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। মজবুত করার চেষ্টা করবেন বিরোধী ঐক্য। চলতি মাসের শেষের দিকে সেই কারণেই দিল্লি যাচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী। যমুনার তীরে মমতার নেতৃত্বে বিজেপি-বিরোধী জোট দানা বাঁধে কি না, এখন সেটাই দেখার।    

    

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here