বাংলায় এনআরসি হবেই, পছন্দ না হলে মমতাকে বাংলাদেশে যাওয়ার পরামর্শ বিজেপির সুরেন্দ্রর

0
1441

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এমনিতেই সদা বিতর্কিত তিনি। মুখ খুললে আর রেহাই নেই। উত্তরপ্রদেশের জনপ্রিয় বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং এবার মুখ খুললেন মমতাকে নিয়ে। ‘টপিক’ এনআরসি। অসমের ধাঁচে বাংলায় এনআরসি করতে দেবেন না বলে শুরু থেকেই সরব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ইস্যুতেই তাঁকে তোপ দেগে সুরেন্দ্রর দাবি, যদি তৃণমূল সুপ্রিমো বাংলাদেশীদের নিয়ে রাজনীতি করতে চান তাহলে ওনার উচিত বাংলাদেশের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টা করা।

বাংলায় এনআরসি নিয়ে তরজা চলছেই। একদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন তিনি বেঁচে থাকতে বাংলায় কেউ এনআরসি করতে পারবে না। পাল্টা বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন বাংলায় এনআরসি ওনাকে বেঁচে থেকে দেখে যেতে হবে। এহেন সময়েই এনআরসির ডামাডোলকে আরও খানিক উস্কে মমতাকে তীব্র আক্রমণ শানালেন বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। তিনি বলেন, ‘মমতার খারাপ দিন ঘনিয়ে আসছে। ওনার মুখের ভাষার পরিবর্তন দরকার। যদি উনি বাংলাদেশী মানুষের সমর্থন নিয়ে নিজের রাজনীতি চালিয়ে যেতে চান, তাহলে ওনার উচিত বাংলাদেশের চলে যাওয়া। এটা বরং ভালো হবে যদি উনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হন। অবশ্য যদি ওনার সে ক্ষমতা থাকে তো।’

তবে শুধু এইটুকুতেই খান্ত থাকেননি ওই বিজেপি বিধায়ক। সুর চড়িয়ে তিনি আরও বলেন, ‘অসমের মতো এনআরসি তালিকা প্রকাশ করা হবে পশ্চিমবঙ্গেও। এবং সেখানে তৃণমূলের সৌজন্যে রাজ্যে ঘাঁটি গেড়ে থাকা বাংলাদেশীদের দু প্যাকেট করে খাবার ধরিয়ে ভদ্রভাবে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হবে।’ উল্লেখ্য, অসমে সদ্য প্রকাশিত এনআরসি তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ১৯ লক্ষ মানুষ। এহেন পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গে যদি এনআরসি চালু করা হয় তবে সেখান থেকে অন্তত ২ কোটি মানুষ বাদ পড়বেন বলে দাবি করেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তবে বাংলায় এনআরসি না করার জন্য সরব শাসকদল তৃণমূল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here