kolkata bengali news

ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচন ঘাড়ের কাছে নিঃশ্বাস ফেলছে। এমনই এক আবহে নিজেদের ভোট বাক্স বাড়াতে সেনা নিয়ে রাজনীতি করছে মোদী সরকার। স্পষ্ট ভাষায় এমনই অভিযোগ বিজেপি সরকারের দিকে বারে বারে তুলেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার বিশ্ব নারী দিবসের দিনেও নারীর গুণগান গেয়ে ফের মোদী সরকারের দিকে একরাশ অভইযগের আঙুল তুললেন মমতা। এদিন মোদীর দিকে তার আক্রমণের জন্য তাঁর হাতিয়ার ছিল সেই জম্মু কাশ্মীর। আরও একবার তাঁর প্রশ্ন, ‘উরি, পাঠানকোট, পুলওয়ামার ঘটনা কেন ঘটল? গোয়েন্দা রিপোর্ট থাকা সত্ত্বেও কেন ঠেকানো গেল না জওয়ানদের মৃত্যু?’ পাশাপাশি তিনি এটাও জানান, এই মোদী সরকারের এক্সপায়ারি ডেট শেষ। নতুন সরকার এসে কাশ্মীরে শান্তি ফেরাবে। উগ্রপন্থা শেষ হবে এটাই আমাদের অঙ্গীকার।’

শুক্রবার বিশ্ব নারীদিবস উপলক্ষ্যে শহরের রাজপথে মিছিলের ডাক দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শ্রদ্ধানন্দ পার্ক থেকে মিছিল যায় ডোরিনা ক্রসিং পর্যন্ত। এই পদযাত্রা শেষে বেশ কিছুক্ষণের জন্য মোদীকে তোপ দাগতে হাতে মাইক্রোফোন তুলে নেন মমতা। মোদীর দিকে আঙুল তুলে তাঁর অভিযোগ, ‘গোটা দেশটাকে চুরি করে নিয়েছেন আপনি। চলে যাওয়ার পর দেশ বুঝবে দেশের ভাণ্ডার চুরি হয়ে গিয়েছে।’ এরপর রাজ্য বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে তাঁর বক্তব্য, ‘আগে খেতে পেত না এখন ওদের বাইক দিচ্ছে। এসব কার টাকা? সব জনতার টাকা, নোটবন্দির টাকা, রাফায়েলের টাকা।’ তবে মোদীকে আক্রমণ করার পাশাপাশি, নারী দিবসে রাজ্যের কৃতিত্বও তুলে ধরেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘ভোট এলেই কিছু লোক ৩৩ শতাংশ মহিলাদের সংরক্ষণের দাবি তোলে। কিন্তু আমরা এ সব অনেক দিন আগেই করে দিয়েছি। আমাদের ৩৫ শতাংশ নির্বাচিত সদস্য মহিলা।’

 

পাশাপাশি এদিনের সভায় তিনি বলেন, ‘দেশের মধ্যে সেরা রাজ্য হল আমাদের বাংলা। রাজ্যের মহিলাদের উন্নয়নের জন্য আমরাই রয়েছি এক নম্বরে।’ উদাহরণ হিসাবে, রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী ও স্বাস্থ্যসাথীর মতো একাধিক প্রকল্পের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here