kolkata bengali news

ডেস্ক: দুর্গাপুরের জনসভায় মমতাজ সঙ্ঘমিতার সমর্থনে প্রচারে গিয়ে আলুওয়ালিয়াকে ঠেকাতে শিখদের ধর্মগুরুকেই মঞ্চে তুললেন মমতা৷ দুর্গাপুরের খালসা গুরুদ্বারের সভাপতি বলবিন্দর সিংহকে মঞ্চে তুলে তাঁকে কয়েক মিনিট বক্তব্য রাখতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মতো মঞ্চ থেকে তৃণমূল প্রার্থী মমতাজ সঙ্ঘমিতাকে জেতানোর জন্য আহ্বান জানান বলবিন্দর সিং৷ দার্জিলংয়ের বিদায়ী সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়াকে বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করেছে বিজেপি৷ আলুওয়ালিয়ার প্রার্থীর টিকিট পাওয়ার পর থেকে একাধিক জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছে আলুয়ালি সাংসদ থাকাকালীন তাঁকে কোনওদিন দার্জিলিং-এ দেখা যায়নি, দার্জলিং-এর মানুষের কোনও উপকার করেননি আলুওয়ালিয়া, দুর্গাপুরের ভূমিপুত্র হওয়া সত্ত্বেও কেন মানুষ তাঁকে ভোট দেবেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ এদিন আরও এক পাল্টা চাল দিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ জনসভার মঞ্চে বক্তৃতা দিতে বললেন খালসা গুরুদ্বারের সভাপতিকে, শিখদের সমর্থন টানার কোনও কসুর করলেন না দিদি৷ মঞ্চে উঠেই এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্গাপুরের অতীতের ইতিহাস তুলে ধরে বলেন, বলেন, দুর্গাপুর-বর্ধমানে যা উন্নয়ন হয়েছে বিধান রায়ের আমলে হয়েছে, তারপর  বিগত সাত বছরে তৃণমূল সরকার দুর্গাপুর আসানসোল শিল্পাঞ্চলের প্রভূত উন্নয়ন ঘটিয়েছে৷

মোদীবাবুরা মানুষ মেরে শ্মশানে নিয়ে যায়, সিউড়িতে এভাবেই দেশের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এদিনও দুর্গাপুরে গিয়ে জনসভা থেকে বিজেপিকে ‘স্বার্থপর’ সরকার বলে তোপ দাগলেন দিদি৷ বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে বাংলাকে বঞ্চনার অভিযোগ দিদির নতুন নয়৷ তৃণমূল সু্প্রিমো আগেও বলেছেন, মোদী সরকার বাংলাকে পিছিয়ে রাখতে চায়, বাংলার উন্নয়নে বাধা দেয়৷ এদিনিও সেই অভিযোগের সুরই শোনা গেল মুখ্যমন্ত্রীর গলায়৷ এদিন আরও একবার মঞ্চ থেকে মোদীকে বসন্তের কোকিল বলে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, সারা বছর বিদেশে ঘুরে বেড়ায় আর ভোট এলেই বসন্তের কোকিলের মতো কুহু কুহু করে বলে ভোট দাও ভোট দাও৷

মোদী জমানায় দেশে বেকারত্ব বেড়েছে বলে আরও একবার দুর্গাপুরের মানুষকে মনে করিয়ে দেন তিনি৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় দুর্গাপুজো করতে দেন না বলে মোদী বারে বারে যে আক্রমণ শানিয়েছেন, এদিন দিদি বললেন, মোদীবাবু জানেন না দুর্গাকে দেখতে কেমন হয়৷ কি জন্যে এত অস্ত্র থাকে দেবীর হাতে৷ তাঁর মতো অসুরদের বধ করতে দেবীর হাতে অস্ত্র থাকে৷ এদিন মোদীকে বাংলায় এসে দুর্গাপুজো দেখে যাওয়ার জন্যও আহ্বান জানান দিদি৷ কটাক্ষ করে বলেন, মোদী দুর্গা ঠাকুর চেনেন না, ওদের হাতে গদা আর তলোয়ার থাকে আর দুর্গা ঠাকুরের হাতে থাকে অস্ত্র৷ এদিন চেনা সুরেই আরও একবার মোদীকে ‘ঝুটা চৌকিদার’ বলে কটাক্ষ করেন দিদি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here