ঠাকুরনগরে বোমাবাজি ঘিরে ফের কাজিয়ায় বড়মার পরিবার! বিরক্ত মতুয়া সমাজ

0
220
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বনগাঁ: লোকসভার ভোট সাঙ্গ হয়েছে মাস কয়েক আগেই। সেখানেই মুখোমুখি লড়াইয়ে নেমেছিলেন দুইজনে। ফলাফলের জেরে একজন হলেন প্রাক্তন অপরজন হলেন বর্তমান। তবুও বন্ধ হল না আকচাআকচি। রোজের জীবনে তা আজও বজায় রয়েছে জোর কদমে। আর দুই পক্ষের এই তু তু ম্যায় ম্যায় দেখে এখন বেশ কিছুটা বিরক্ত তাদেরই অনুগত ধর্মীয় সমাজের মানুষেরা। ঘটনাস্থল উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ মহকুমার গাইঘাটা ব্লকের ঠাকুরনগর। যেখানে মঙ্গলবার রাতের এক বোমাবাজির ঘটনাকে ঘিরে বুধবার সকালে কাজিয়ায় মেতেছেন তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ তথা বড়মা বীণাপাণি দেবীর জৈষ্ঠ্যপুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুর এবং বর্তমান বিজেপি সাংসদ তথা বড়মার নাতি শান্তনু ঠাকুর।

মঙ্গলবার রাতে ঠাকুরনগরের ঠাকুরবাড়িতে কামনা সাগরের পাড়ে বোমাবাজির ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের মতো শব্দে ঘুম ভাঙে এলাকাবাসীর। তার জেরে সাময়িক ভাবে কিছুটা হলেও আতঙ্ক ছড়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে। খবর যায় পুলিশের কাছেও। যদিও তারা পরে জানান বিস্ফোরণের কোন ঘটনা ঘটেনি, তবে বোমাবাজির চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। এরপর বুধবার সকালে মতুয়া মহাসংঘের মহাসংঘাধিপতি মঞ্জুলকৃষ্ণ ঠাকুর গাইঘাটা থানায় লিখিত এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

kolkata bengali news

কিন্তু এদিন বনগাঁর প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর অভিযোগ তোলেন যে, ‘এই বোমাবাজির ঘটনা শান্তুনু ঠাকুর ঘটিয়েছে। আমি এনআরসি নিয়ে লড়াই করছি তো। তাই আমাকে এখান থেকে তাড়িয়ে দেবার জন্যেই বিজেপির নির্দেশে সে এই বোমাবাজি ঘটিয়েছে।’ মমতাবালার এই অভিযোগ নিয়েই শোরগোল পড়েছে মতুয়া সমাজে। যদিও ঠাকুরবাড়ির এই আকচাআকচিকে মোটেও ভালো চোখে দেখছেন না মতুয়া সমাজের মানুষ। তাদের বক্তব্য, ঠাকুরবাড়িতে রাজনীতির অনুপ্রবেশের জন্যই তাদের সমাজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here