Parul

মহানগর ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের মোট ৬টি শহরে মমতা ব্যানার্জীর একুশে জুলাই এর ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর লখনোউ, বারেলি সহ যোগীরাজ্যের ছয়টি শহরে ইতিমধ্যেই এলইডি স্ক্রিন পৌঁছে গেছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। রাজ্যে পৌঁছে গেছেন তৃণমূলের রাজ্যসভা সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়। আগামী বছরেই উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগেই নিজেদের জন্য সুযোগ তৈরি করতে চাইছে তৃণমূল এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। উত্তরপ্রদেশের মঞ্চ মমতার জাতীয় রাজনীতিতে প্রদেশের উত্তম সুযোগ হয়ে উঠতে পারে।

ads

মমতার ভাষণ এদিন লখনোউ ছাড়াও উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলি, বারেলি, মির্জাপুর, আজমগড় এবং উল্লেখযোগ্য ভাবে নরেন্দ্র মোদির লোকসভা কেন্দ্র বারাণসীতেও সম্প্রচারিত হতে চলেছে। রাজ্যে বারাণসীতে উল্লেখযোগ্য বাঙালি জনসংখ্যাও রয়েছে। এই সুযোগ তৃণমূল কাজে লাগাতে পারে। মোদির ঘরে সিঁধ কেটে নিজেদের পারলে জাতীয় স্তরে তৃণমূলের তাৎপর্য যথেষ্ট বৃদ্ধি পেতে পারে। উত্তরপ্রদেশে নিজেদের উপস্থিতি পাকা করে নিজেদের ২৪ এর ভোটের রাস্তা আরো মসৃণ করতে চাইছে তৃণমূল। এমনটাই ধারণা রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে রাজনৈতিক কুশলী এবং মমতার বিশ্বস্ত প্রশান্ত কিশোর সম্প্রতি পাওয়ার এবং দিল্লিতে রাহুল গান্ধীর সাথে বৈঠক করেছেন। সূত্রের মতে অন্যান্য কারণ ছাড়াও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জাতীয় ক্যাম্পেনও এই বৈঠকগুলির পেছনে অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল। প্রসঙ্গত আগামী ২৬ জুলাই দিল্লী সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি সেই সফরে উত্তরপ্রদেশের সমাজবাদী পার্টি প্রমুখ অখিলেশ যাদবের সাথেও দেখা করতে পারেন। অবশ্য তার আগেই উত্তরপ্রদেশে পৌঁছে গেছে তৃণমূলের নির্বাচনী স্লোগান ‘খেলা হবে’। সমাজবাদী পার্টি এই স্লোগানের ভোজপুরি রূপ দিয়ে বানিয়েছে ‘খেলা হই’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here