‘বন্দুক দিয়ে কোনও সমস্যার সমাধান হয় না’, অটল স্মরণে কেন্দ্রকে খোঁচা মমতার

0
71
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: উপত্যকায় ৩৭০ ধারা বিলোপ নিয়ে ইতিপূর্বেই সরব হয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। এবার একই সুর শোনা গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। শুক্রবার প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে টুইটারে একটি পোস্ট করেন রাজ্যেরে মুখ্যমন্ত্রী। তাতে প্রয়াত নেতার উদ্ধৃত বাণী টেনে এনে মোদী সরকারকে একহাত দেন তিনি।

টুইটারে মমতা বলেন, ‘বন্দুক দিয়ে কোন সমস্যার সমাধান হয় না। কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে হলে প্রয়োজন ইনসানিয়ত, জামহুরিয়াত, কাশ্মীরিয়ত এই তিন নীতির।’ সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের তত্ত্বাবধানে সংসদে কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বিলোপ এবং জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে পৃথকীকরণ বিল পাশ হয়। যদিও এই বিলে বিরোধী জোটের অনেকাংশের সম্মতি থাকলেও এক্ষেত্রে পাশে পাওয়া যায়নি কংগ্রেস ও তৃণমূলকে। ৫ আগষ্ট সংসদে এই বিষয়ে বিরোধীতা করে সভা ছাড়েন তৃণমূলের সাংসদরা। মমতা এই প্রক্রিয়ার বিরোধিতা করলেও সরাসরি এর বিরুদ্ধে কথা বলেননি।

প্রসঙ্গত জম্মু কাশ্মীর সংরক্ষণ আইন প্রত্যাহারের আগের দিনই গৃহবন্দি করা হয় কাশ্মীরের প্রাক্তন তিন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা, সহ মেহেবুবা মুফতিকে। পাশাপাশি নিরাপত্তা জনিত কারনে উপত্যকায় জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। নিশিচ্ছদ্র নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয় গোটা কাশ্মীরকে। মোতায়েন করা হয় প্রায় ৩৫হাজার সেনা। বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে ইন্টারনেট টেলিভিশন ও টেলিফোন পরিষেবা। সরকারের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করে বিরোধীদের একাংশ বলেছেন কাশ্মীরে গণতন্ত্রের হত্যা করা হয়েছে। এপ্রসঙ্গে সুর চড়িয়ে রাহুল গান্ধী বলেছেন কাশ্মীরে অশান্তির বাতাবরণ তৈরী হয়েছে সরকারের তরফে তা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য সাধারন মানুষ গণমাধ্যমের প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা চাপান হয়েছে। এবার একই কথা বলতে শোনাগেল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে। মোদী-শাহ জুটিকে কটাক্ষ করে বর্ষীয়ান নেতার প্রয়াণ দিবসের টুইট থেকেই তোপ দাগলেন তিনি।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here