ডেস্ক: ধর্ষণ রুখতে যখন একের পর এক কড়া আইন প্রণয়ন হচ্ছে আমাদের দেশে, ঠিক তখনই নতুন ব্যধি রুপে ধরা দিচ্ছে ‘ধষর্ণ’! এতটাই বিকৃত মানসিকতা তৈরি হয়েছে, যে এখন পশুদেরও ধর্ষণ করতে পিছপা হচ্ছে না তারা৷ সম্প্রতি ছাগলকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, যা নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল দেশ৷ এবার ধষির্তা হল একটি অবলা গরু৷ তাও কিনা আবার বিজেপি শাসিত রাজ্য মধ্যপ্রদেশে৷ যেখানে গো-রক্ষকরা বেশ সক্রিয়৷ মধ্যপ্রদেশের রাজগড় জেলার সুথালিয়া এলাকার এমন ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্ততে অবশ্য ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

পুলিশ সূত্রে খবর, গতসপ্তাহে সুথালিয়ার একটি গ্রামের এক পরিবার থেকে ওই ধষর্কের নামে গরুকে ধষর্ণ করার অভিযোগ দায়ের করা হয়। পুলিশ তদন্তে নেমে সোমবার গ্রেফতার করে অভিযুক্তকে। কিন্তু অভিযুক্তের পরিবারের দাবি, ব্যক্তিগত প্রহিংসা থেকে ফাঁসানো হয়েছে অভিযুক্তকে৷ অভিযুক্তের পরিবারের লোক সুথালিয়ার পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করে দাবি করেন, অভিযোগকারী পরিবারের সঙ্গে তাদের জমি নিয়ে দীর্ঘদিনের একটা বিবাদ আছে। তার জেরেই তাদের পরিবারের ওই ব্যক্তির নামে অদ্ভুত ও মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশও জানতে পেরেছে, দুই পরিবারের মধ্যে একটি জমির মালিকানা নিয়ে বিবাদ রয়েছে। কিন্তু কারা ঠিক বলছে, তা তদন্ত করার পরই বলা সম্ভব৷

উল্লেখ্য, গবাদি পশুকে ধর্ষণের অভিযোগ এদেশে এই প্রথম নয়। কিছুদিন আগেই হরিয়ানার মেওয়াতে আলসু নামে এক ব্যক্তি নাগিনা থানায়, তাঁর একটি ছাগলকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ এনেছিলেন। অভিযোগকারী জানিয়েছেন, ছাগলটি গর্ভবতী ছিল এবং ধর্ষিত হওয়ার পর ছাগলটি মারা যায়৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here