kolkata bengali news

ডেস্ক: মোদীর সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পকে ‘ন্যায়’ দিয়ে ঢাকতে চেয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। এই নির্বাচনী আবহে কংগ্রেসের নয়া প্রতিশ্রুতি, ক্ষমতায় এলে প্রত্যেক গরীব পরিবারকে ৭২,০০০ টাকা করে দেবে তারা। রাহুল গান্ধীর এই ঘোষণার পর রাজনৈতিক মহলে শোরগোল শুরু হয়েছে। ‘ভাওতা’, ‘ঢপবাজি’ বলে বিরোধীদের তরফে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এই ঘোষণাকে। কিন্তু ইন্দোরের এক বাসিন্দা কিন্তু রাহুলের ঘোষণায় ভীষণ আশাবাদী। তাঁর আশা, নিজের ডিভোর্স মামলা লড়ে স্ত্রীকে খোরপোশ দিতে পারবেন তিনি এই টাকায়!

ঘটনা হল, ইন্দোরের এক বাসিন্দার আদালতে ডিভোর্সের মামলা চলছে। সেখানে স্বামীর থেকে প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা খোরপোশ চেয়েছেন স্ত্রী। কিন্তু ব্যক্তির আইনজীবীর দাবি, তাঁর মক্কেল অত্যন্ত গরীব, প্রতি মাসে এই টাকা দেওয়ার ক্ষমতা নেই। কিন্তু রাহুল গান্ধীর ঘোষণায় তিনি আশার আলো দেখেছেন। তিনি জানিয়েছেন, কংগ্রেস যদি ক্ষমতায় আসে, তবে প্রতি মাসে গরীবরা ৭২,০০০ টাকা করে পাবে। সেই প্রেক্ষিতে তাঁর মক্কেলও এই টাকা পাবে। আর এই অর্থ পেলেই সে তার স্ত্রীকে খোরপোশ দিতে সক্ষম হবে এবং বাকি টাকা দিয়ে নিজে ভালোভাবে বাঁচতে পারবে। এই মর্মেই ব্যক্তির দাবি, রাহুল গান্ধী ৭২,০০০ টাকা দিলেই স্ত্রীকে খোরপোশ দিতে শুরু করবেন তিনি!

 

উল্লেখ্য, দেশের গরিব মানুষদের জন্য মাসিক অন্তত ১২ হাজার টাকা দেওয়ার পাশাপাশি, ‘ন্যায়’ প্রকল্পের মাধ্যমে ভারতের ২০ শতাংশ গরিবকে বার্ষিক ৭২ হাজার টাকা করে অ্যাকাউন্টে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। রাহুল বলেন, ক্ষমতায় এলে ন্যায় প্রকল্প চালু করবে কংগ্রেস। যে প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের যেসব মানুষের নাম মিনিমাম বেসিক ইনকাম গ্যারান্টি স্কিমে নথিভূক্ত রয়েছে, তাঁদের মধ্যে ২০ শতাংশ গরিব মানুষকে বার্ষিক ৭২ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। সরকারের এই প্রকল্পের সুবিধা টাকা সরাসরি দিয়ে দেওয়া হবে গরিব মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে উপকৃত হবেন দেশের প্রায় ২৫ কোটি মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here