maharastra news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকার সঙ্গে সহবাস৷ তবে পরে কথা রাখেনি প্রেমিক৷ অপমানে শেষপর্যন্ত আত্মহত্যার চেষ্টা করে প্রেমিকা৷ যদিও তা সফল হয়নি৷ তাতে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে৷ এরপর সেই যুবককে ধরে এনে জোর করে প্রেমিকাকে বিয়ে করতে বাধ্য করতে হয়৷ কিন্তু তাতে লাভের লাভ কিছুই হল না৷ বিয়ের পরেই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেল প্রেমিক৷ মহারাষ্ট্রের পুনেতে এমন ঘটনায় রীতিমত স্তম্ভিত প্রেমিকা ও তার পরিবার৷

পুলিশ সূত্রে খবর, অনেকদিনের সম্পর্ক ছিল ওই যুবক-যুবতীর৷ প্রেমিকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস করেও শেষপর্যন্ত বিয়ে করেননি যুবক। এরপরই বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে যুবতী৷ আত্মহত্যার চেষ্টার পরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় যুবতীকে। তারপরে যুবতীর বাড়ির লোকজন তাঁর প্রেমিককে ধরে নিয়ে আসেন হাসপাতালে। সেখানে একপ্রকার জোর করে যুবতীকে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয় প্রেমিককে। চাপে পড়ে চুপচাপ বিয়েও করে নেয় যুবক৷ তবে বিয়ের পড়েই চম্পট দেয় যুবক৷ তারপর থেকে আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি ওই যুবকের৷

জানা গিয়েছে, এই ঘটনার পরেই ওই যুবতী থানায় তাঁর প্রেমিকের নামে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্তকারী অফিসার প্রকাশ রাঠোর জানিয়েছেন, সুরজ নালওয়াডে নামের ওই যুবকের বিরুদ্ধে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭৬ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই ওই যুবকের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

নিজের অভিযোগে ওই যুবতী জানিয়েছেন, সুরজ নালওয়াডে নামে ওই যুবক সঙ্গে জোর করে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন। সুরজ প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সে বিয়ে করবে তাকে। তাই তাকে বিশ্বাস করেছিলেন ওই যুবতী। কিন্তু সুরজ তাঁর বিশ্বাস ভেঙেছেন বলে অভিযোগ করেছেন যুবতী। সঙ্গে তার এও অভিযোগ, নিচু জাতের বলে যুবতীকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে সুরজ। যার জেরে ২৭ নভেম্বর বিষ খান ওই যুবতী। তারপরেই তাঁকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। সেখানেই যুবককে ধরে এনে বিয়ে দেওয়ার পরেও পালিয়ে যায় সে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here