kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাতের শহরে ফের যুবক খুন। ঘটনাস্থল পঞ্চসায়র থানার নবদিগন্ত এলাকা। পুলিশ সূত্রে খবর, বাড়ির বাইরে রাস্তার কুকুরদের প্রহার করার প্রতিবাদ করাতেই বিশ্বরূপ দাস নামে বছর পঁচিশের এক যুবককে পিটিয়ে খুন করা হয়। রাতেই তাকে পিয়ারলেস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃতের বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে তারক, ধলু এবং আরো বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতীর নামে খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে পঞ্চসায়র থানার পুলিশ।

মৃত যুবকের বাবা দেবু দাসের অভিযোগ, সোমবার রাত পৌনে বারোটা নাগাদ বাড়িতে ফেরে তার ছেলে বিশ্বরূপ। রাতের খাবারের প্রস্তুতি যখন চলছিলো, ঠিক সেই সময় বাড়ির বাইরেই প্রচুর কুকুরের ডাক শোনা যায়। সন্দেহ হওয়ায় দরজা খুলে বাইরে বেরিয়ে আসে বিশ্বরূপ। দেবু বাবুর দাবি, তারক ও ধলু নামে কয়েকজন যুবক রাস্তার কুকুরদের বেধড়ক পেটাচ্ছিল। সেটা দেখতে পেয়েই প্রতিবাদ করে বিশ্বরূপ। আর তাতেই চরম বচসা বেধে যায় তাদের মধ্যে। অভিযোগ, সেই সময় কুকুরগুলোকে ছেড়ে বিশ্বরূপের ওপর চড়াও হয় তারক, ধলু সহ বেশ কয়েকজন। বেধড়ক পেটানো হয় বছর পঁচিশের বিশ্বরূপকে। মৃতের বাবার অভিযোগ, মদের বোতল, ইট এবং উইকেট দিয়ে মারা হয় বিশ্বরূপকে। ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়ে বিশ্বরূপ।

রক্তাক্ত অবস্থায় বিশ্বরূপকে উদ্ধার করে রাত বারোটা কুড়ি নাগাদ পিয়ারলেস হাসপাতালে নিয়ে যায় তার পরিবারের সদস্যরা। পরীক্ষা করেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। এরপরই খবর দেওয়া হয় পঞ্চসায়র থানায়। খবর পেয়ে হাসপাতালে পৌঁছয় পুলিশ। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতের গলার ডান দিকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। মদের বোতলের কাচ গেঁথে গিয়েই রক্তক্ষরণ হতে পারে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে মৃত্যু হতে পারে বিশ্বরূপের। তার বাবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তারক, ধলু সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। রাতেই অভিযুক্তদের খোঁজে শুরু হয় তল্লাশি। যদিও এখনো পর্যন্ত কাউকে ধরা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here