national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একদিকে করোনা, অন্যদিকে ডেঙ্গি, দুইয়ে মিলে বেহাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়ার। স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ার কারণে তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। অবশেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন তিনি। মঙ্গলবার তাঁর করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জানা গিয়েছে। শারীরিক অবস্থা স্বাভাবিক হওয়ার কারণে এদিন হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়েছে তাঁকে। যদিও আগামী এক সপ্তাহ বাড়িতে বিশ্রামে থাকতে বলা হয়েছে দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রীকে।

উল্লেখ্য গত ১৪ সেপ্টেম্বর দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। টুইট করে এতথ্য নিজেই প্রকাশ্যে আনেন তিনি। জানিয়ে দেন বর্তমানে হোম আইসোলেশনের থাকবেন। তবে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই তাঁর শারীরিক অবস্থা গুরুতর হয়ে ওঠে। জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যার কারণে তড়িঘড়ি একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। মেডিক্যাল বুলেটিনে জানা যায় করোনাভাইরাসের পাশাপাশি মণীশ সিসোদিয়া আক্রান্ত হয়েছেন ডেঙ্গিতেও। বিপরীত মেডিকেল টিম গঠন করে চিকিৎসা শুরু হয় উপ মুখ্যমন্ত্রীর। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ার কারণে প্লাজমা থেরাপিও হয়েছিল তার। দীর্ঘ কঠিন লড়াইয়ের পর অবশেষে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন মণীশ সিসোদিয়া।

দিল্লির ক্রমবর্ধমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সামনের সারিতে দাঁড়িয়েই লড়াই করে যাচ্ছিলেন উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া। ৪৮ বছর বয়সী সিসোদিয়া করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে গোটা দিল্লি। অবশেষে স্বস্তির খবর এল সেদিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here