মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর আজ থেকে শুরু হয়েছে অন্তর্দেশীয় বিমান পরিষেবা। কিন্তু প্রথম দিনেই বিপত্তি। দিল্লি, মুম্বই সহ একাধিক বিমানবন্দরে বাতিল বহু বিমান। এমনকি বিমান বাতিলের কথা যাত্রীদের জানানোও হয়নি। ফলে সকাল সকাল বিমানবন্দরে এসে অনেক যাত্রী জানতে পারেন তাদের বিমান বাতিল। আর এর জেরেই একাধিক বিমানবন্দরে শুরু হয় চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা।

দিল্লিতে আপাতত প্রায় ৮২টি বিমান বাতিল হয়ে গিয়েছে। ওই সব বিমানের যাত্রীরা বোর্ডিংয়ের সময় জানতে পারেন যে তাদের বিমান বাতিল হয়ে গিয়েছে। ফলে প্রায় দুই মাস ভিনরাজ্যে আটকে থাকার পর এদিন বিমান ধরতে না পারায় খুব সহজেই ক্ষোভের আগুন ছড়ায় তাদের মধ্যে।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, আগে রাজি থাকলেও শেষমুহূর্তে বিমান চলাচলে আপত্তি প্রকাশ করেছে একাধিক রাজ্য। তার ফলেই বাতিল করতে হয়েছে বিমান। দিল্লি থেকেই আজ ১২৫টি বিমান ছাড়ার ও ১১৮টি বিমান ল্যান্ড করার কথা ছিল। একই ভাবে মুম্বই বিমানবন্দরেও অনেক বিমান বাতিল হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, দেশে করোনা সংক্রমণ আটকাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর লকডাউন ঘোষণা করার পর ২৫ মার্চ থেকে বন্ধ ছিল উড়ান পরিষেবা। অবশেষে আজ থেকে অন্তত ডোমেস্টিক বিমান পরিষেবা চালু হল। ভোর ৪.৪৫ নাগাদ দিল্লি থেকে পুনের উদ্দেশে প্রথম বিমান ছাড়ে। ৬.৪৫ নাগাদ মুম্বই থেকে পাটনার উদ্দেশ্যে ছাড়ে আরও একটি বিমান। সারা দেশে এই বিমান পরিষেবা চালু হলেও বাংলা ও অন্ধ্রপ্রদেশে তা হয়নি। বাংলায় আমফান আছড়ে পড়ায় কেন্দ্রের কাছে বিমান পরিষেবা কিছুদিন পরে শুরু করার আর্জি জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মতোই ২৮ মে থেকে বাংলায় চালু হবে বিমান পরিষেবা। অন্যদিকে, অন্ধ্রপ্রদেশে আগামীকাল থেকে শুরু হবে।

ইতিমধ্যেই কর্ণাটক, কেরল ও তামিলনাড়ু জানিয়ে দিয়েছে যেসব যাত্রী বিমানে করে রাজ্যে প্রবেশ করবেন, তাদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতেই হবে। যদিও কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে শুধুমাত্র উপসর্যহীন যাত্রীদেরই বিমানে উঠতে দেওয়া হবে। বিমানে ওঠার আগে ও নামার পর তাদের থার্মাল স্ক্রিনিং করা হবে। এছাড়া সকল যাত্রীদের আরোগ্য সেতু ডাউনলোড করার উপদেশ দেওয়া হয়েছে। যাত্রীদের বাড়ি ফেরার পর ১৪ দিন নিজের খেয়াল রাখতে বলা হয়েছে কেন্দ্রের তরফ থেকে। এর মধ্যে করোনার উপসর্গ লক্ষ্য করলে তৎক্ষণাৎ স্বাস্থ্যকেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here