train-1

মহানগর ওয়েবডেস্ক: যাত্রীদের কাছে ছিল না কোনও আগাম খবর। ফণীর জেরে হঠাৎই রেল দফতরের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ট্রেন বাতিলের। দুপুর গড়াতেই রেলের সিদ্ধান্তের জেরে বাতিল করে দেওয়া হয় শিয়ালদহ উত্তর ও দক্ষিণ শাখার পঞ্চাশেরও বেশি ট্রেন। রেলের তরফে কোনও আগাম নির্দেশ ছাড়াই এই সিদ্ধান্তের জেরে চরম ভোগান্তির শিকার হলেন এই দুই শাখার যাত্রীরা।

শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী ইতিমধ্যেই আছড়ে পড়েছে ওড়িশা উপকূল সহ বাংলার একাংশে। গোটা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। রেলের তরফেও বাতিল করা হয়েছে একাধিক দূরপাল্লার ট্রেন। এরপর আগাম সতর্কতার জেরে বাংলায় ফণীর প্রভাব পড়ার আগেই একাধিক লোকাল ট্রেন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। আপাতত শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে বহু লোকাল ট্রেন। পরিস্থিতি খারাপ হলে শনিবারও বহু ট্রেন বাতিল করা হতে পারে। কিন্তু হঠাৎ এই সিদ্ধান্তের জেরে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন যাত্রীরা। এদিন বিকেলেই অবরোধ করা হয়েছে বারাসত স্টেশন। বিপাকে পড়েছেন দক্ষিণ শাখার যাত্রিরাও

রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, যে সমস্ত ট্রেন গুলি বাতিল করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে, শিয়ালদহ, ক্যানিং, লক্ষ্মীকান্তপুরের আপ ডাউন একাধিক ট্রেন। শিয়ালদহ উত্তর শাখাতেও বারাসত ও হাসনাবাদের একাধিক ট্রেন। বাতিল তালিকায় জানা গিয়েছে ৮টি শিয়ালদহ-ক্যানিং লোকাল, ৭টি ক্যানিং-শিয়ালদহ, ৬টি শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার লোকাল, ৪টি ডায়মন্ডহারবার-শিয়ালদহ, ৮টি শিয়ালদহ-লক্ষ্মীকান্তপুর, ৬টি লক্ষ্মীকান্তপুর-শিয়ালদহ। পাশাপাশি, শিয়ালদহ-বারাসত-হাসনাবাদ শাখায় বাতিল করা হয়েছে ১০টি লোকাল ট্রেন। এই তালিকাতেই রয়েছে বারুইপুর-লক্ষ্মীকান্তপুর লোকালও। যদিও রেলের তরফে জানা গিয়েছে, পূর্ব রেলের হাওড়া শাখাতে কোনও ট্রেন বাতিল করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here