ডেস্ক: স্বরস্বতী পুজোর দিন মধ্য রাতে বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল দমদম গোরাবাজারের ১৫০টি দোকান। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১ ব্যক্তির। জানা গিয়েছে রাত দেড়টা নাগাদ বাজারের ভিতরে দোকানে আগুন লাগে। বিধ্বংসী আগুনে ভস্মীভূত হয় বহু দোকান। ঘটনাস্থলে আসে দমকলের ২২টি ইঞ্জিন। কিন্তু সমগ্র এলাকাটি ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় দমকলের ঢুকতে দেরি হয়। কমপক্ষে কয়েক কোটি টাকার সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আগুন লাগার ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ইউকো ব্যাঙ্কের একটি শাখা। বাজারের ব্যবসায়ী ছাড়াও স্থানীয় বহু বাসিন্দার অ্যাকাউন্ট ও লকার রয়েছে এই ব্যাঙ্কে। কারও জমির দলিল, কারও দোকানের কাগজ জমা রয়েছে। গতকাল রাজে বাজারের নিরপত্তারক্ষীদের নজরে আগুন লাগার বিষয়টি নজরে আসলে তারা দমকলে খবর দেন। ব্যবসায়ীদের একাংশে অভিযোগ, খবর দেওয়ার প্রায় ১ ঘণ্টা পর ঘটনাস্থানে যায় দমকল। ফলে দমকল আসার আগেই আগুন আয়ত্বের বাইরে চলে যায়।

দমকল সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্ভবত শর্ট সার্কিট থেকেই আগুন লাগে। বাজারে অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থার যথেষ্ট অভাব ছিল বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে এই অগ্নিকাণ্ডের জন্য সরাসরি অভিযোগের উঠেছে বাজার সমিতির দিকে। বাজারে অগ্নিনির্বাপণ ও প্রয়োজনীয় সুরক্ষা ব্যবস্থা সমিতির তরফে করা হয়নি বলে দাবি করেছেন তাঁরা। পাশাপাশি, দেরি করে দমকলের ঘটনাস্থলে পৌঁছনো, জল ফুরিয়ে যাওয়ার মতো অভিযোগও করেছেন ব্যবসায়ীরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here