মহানগর ওয়েবডেস্ক: বৃষ্টি নেই, বৃষ্টি নেই বলে যে বৃষ্টি হঠাৎ শুরু হয়েছে তাতে ইতিমধ্যেই জলমগ্ন শহরের বেশিরভাগ অংশ। বেহালা, ঠনঠনিয়া, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ থেকে শুরু করে সখেরবাজার, শিলপাড়া, জনকল্যাণের মতো জায়গার রাস্তা প্রায় নদীতে পরিণত হয়েছে। এমতাবস্থায় সকাল থেকেই নগর পরিদর্শনে বেরিয়েছেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। তাঁর সঙ্গী হয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায়।

রাত থেকে টানা বৃষ্টিতে একেবারে নাজেহাল অবস্থা শহরবাসীর। বিভিন্ন অংশে জল জমে যাওয়ায় প্রথম থেকেই একাধিকবার অভিযোগ আসছিল মেয়রের কাছে। তারপরই পুরসভার আধিকারিকদের সঙ্গে আগে থেকে ঠিক হওয়া বৈঠক বাতিল করে শহরের বিভিন্ন পাম্পিং স্টেশনের পরিদর্শনে বের হন ফিরহাদ হাকিম। উত্তর কলকাতার বেলেঘাটা থেকে শুরু করে দক্ষিণ কলকাতার খিদিরপুর, মোমিনপুরের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন মেয়র। যান বেহালাতেও। বেহালার পরিস্থিতি মেয়রকে ঘুরিয়ে দেখান প্রাক্তন মেয়র তথা সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়।

অন্যদিকে, জল জমা প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরাসরি মেট্রোরেলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। মেট্রোরেলের কাজ চলার কারণেই এই সমস্যা বলে অভিযোগ করেন তিনি। মমতা বলেন, মাঝেরহাট ব্রিজের অনুমতি যদি রেল তাড়াতাড়ি দিত তাহলে এই সমস্যা হতো না। রাজ্য ব্রিজ দ্রুত করতে পারতো। এতদিন বৃষ্টি নেই বলে উৎকণ্ঠা বাড়ছিল শহর কলকাতার। তবে হঠাৎ ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টি শুরু হওয়ায় নিমেষের মধ্যে চিত্র পাল্টে গিয়েছে তিলোত্তমার। শহরের বিভিন্ন জায়গা জলমগ্ন, বিভিন্ন এলাকায় নৌকা নিয়ে মানুষ জলে নেমেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here