হালাল খাবার বিক্রির কথা স্বীকার করে বিপাকে ম্যাকডোনাল্ডস

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জোমাটোর পরে এবার ম্যাকডোনাল্ডস৷ হালাল কাণ্ডে বিপাকে নেটিজেনদের প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ল এই বহুজাতিক ফাস্ট ফুড সংস্থা৷ ঝামেলার মূলে এই সংস্থার করা একটি ট্যুইট৷ এতে স্বীকার করেছে তারা হালাল খাবার বিক্রি করে৷ উল্লেখ্য অধিকাংশ মুসলিমরা হালাল মাংস ছাড়া খায় না৷ উল্টোদিকে হিন্দুরা আবার হালাল মাংস খায় না৷ শুধু এখানেই শেষ নয়৷ ম্যাকডোনাল্ডস জানিয়েছে, আমাদের রেস্তোঁরারা ম্যানেজারদের কাছে জানতে চাইলে তাঁরা হালাল সার্টিফিকেট দেখাবেন৷ এই স্বীকারোক্তির পরে নেটিজেনদের একাংশের প্রশ্ন তাহলে ম্যাকডোনাল্ডসে কি হিন্দুরা আর কখনওই খেতে পারবে না? আরও একজন ম্যাকডোনাল্ডের কাছে জানতে চেয়েছেন ৮০ ভাগ হিন্দুদের দেশে কীভাবে ম্যাকডোনাল্ডস হালাল মাংসর খাবার বেচে? তাহলে হিন্দুরা কী আরম্যাকডোনাল্ডসের খাবার খেতে পারবে না?

 

এর আগে জোমাটোতে হালাল নিয়ে বড় সমস্যা হয়েছিল৷ খাবার সরবরাহকারী এই সংস্থায় হাওড়া ও কলকাতার ডেলিভারি বয়রা হালাল খবার নিয়ে যেতে অস্বীকার করেছিল৷ হাওড়ায় এই নিয়ে তাদের একাংশ কর্ম বিরতি করেছিল৷ তবে এই বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছিল জোমাটো৷ তাদের সাফ কথা, খাদ্যের কোনও ধর্ম হয় না৷ এরপর ধর্মঘট উঠে যায়৷ এর আগে শুধু মুসলিম ডেলিভারি বয় হওয়ায় খবার নিতে অস্বীকার করেছিলেন এক গ্রাহক৷

২০১৪ সালে কেন্দ্রে বিজেপি ক্ষমতা দখলের পর থেকে ধর্ম নিরপেক্ষ ভারতে মাংস রাজনীতি শুরু হয়েছে৷ নষ্ট হয়েছে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির আবহ৷ এই নিয়ে দেশজুড়ে শীল্পি , সাহিত্যিক, সাংবাদিক থেকে শুরু করে সমাজকর্মীদের একাংশ বার বার বিরোধিতায় সরব হয়েছেন৷ এখন হালাল নিয়ে ধর্মীয় ভেদাভেদের আঁচ ম্যাকডোনাল্ডস, জোমাটোর মতো সংস্থাগুলির ওপর প্রভাব ফেলেছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here