ডেস্ক: কাশ্মীরে বারংবার হামলার ঘটনায় পাকিস্তানের ওপর বীতশ্রদ্ধ ভারত৷ এদিনও জম্মু-কাশ্মীরে তিন পুলিশকর্মীকে অপহরণ করে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে পাক জঙ্গিরা৷ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েই ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ইমরান খান৷ সেই সম্পর্কের খাতিরেই বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ভারত-পাকিস্তান৷ কিন্তু জঙ্গি হামলার ঘটনাকে সামনে রেখেই কথা দেওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই রাষ্ট্রসঙ্ঘের বৈঠকের ফাঁকে পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের বিদেশমন্ত্রীর বৈঠক বাতিল করল নয়াদিল্লি।

রাষ্ট্রসঙ্ঘের বৈঠকের ফাঁকে দু’দেশের বিদেশমন্ত্রীর আলোচনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। একের পর এক জঙ্গি হামলার ঘটনার মাঝেও পাকিস্কানের ডাকে সাড়া দিয়ে বৈঠকে সবুজ সংকেত দিয়েছিল ভারত৷ বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছিল, ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানের মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশির সঙ্গে নিউ ইয়র্কে বৈঠকে বসবেন। কিন্তু কাশ্মীরে ফের হামলার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ নয়াদিল্লি৷ কিন্তু এদিন ফের কাশ্মীরে ৩ পুলিশকর্মীকে অপহরণ করে খুন করে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা৷ পাকিস্তানের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তোলে দেশের রাজনৈতিক মহল৷ নমো সরকারের সিদ্ধান্তের বিরোধীতায় মুখর হয় বিরোধীরাও৷ কিন্তু শেষমেশ সেই বৈঠক বাতিলেরই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ বিদেশমন্ত্রের স্পষ্ট বার্তা, সন্ত্রাসের সঙ্গে আলোচনার কোনও সম্পর্ক নেই৷

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here