টালা ব্রিজ পুরো ভেঙে ফেলার সুপারিশ! নবান্নে ১২-র বৈঠকের দিকে তাকিয়ে তিলোত্তমা

0
244
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: টালা ব্রিজ নিয়ে ব্রিজ বিশেষজ্ঞ ভি কে রায়নার লিখিত রিপোর্ট জমা পড়ল নবান্নে। পঞ্চমীর দিন তিনি টালা ব্রিজ পরিদর্শন করেন। সেদিনই তিনি মৌখিক একটি রিপোর্ট জমা দিয়েছিলেন পূর্ত দফতরকে। পুজো শেষ হতেই তাঁর লিখিত রিপোর্ট জমা পড়ল। সূত্রের খবর, রায়নার রিপোর্টেও টালা ব্রিজের বর্তমান অবস্থা ‘বিপজ্জনক’ বলা হয়েছে। ব্রিজটি সম্পূর্ণরূপে ভেঙে ফেলে নতুন করে ব্রিজ তৈরির সুপারিশ রয়েছে রিপোর্টে। বুধবার নবান্নে মুখ‍্যসচিবের নেতৃত্বে বৈঠকে রিপোর্ট নিয়ে আলোচনাও হয়েছে। রায়নার রিপোর্টের বিষয়ে মুখ‍্যমন্ত্রীকে জানানো হচ্ছে। ১২ তারিখের বৈঠকে টালা ব্রিজের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করা হতে পারে।

পুজোর আগে নবান্নে এক জরুরি বৈঠকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বিশেষজ্ঞ সংস্থা রাইটসের কাছে আবেদন জানানো হয়েছিল ১১ অক্টোবর পর্যন্ত টালা ব্রিজের ওপর বাস চালানোর অনুমোদন দেওয়ার জন্য। তাতে আপত্তি জানায় রাইটস। বর্তমানে টালা ব্রিজের যা অবস্থা তার পরিপ্রেক্ষিতে রাইটস আগেই জানিয়েছিল তিন টনের বেশি কোন গাড়ি চালানো যাবে না ওই ব্রিজের ওপর। ঘটতে পারে যে কোন মুহূর্তে বড় ধরনের বিপদ। তারপরেই পুজোতে টালা ব্রিজ খুলতে উদ্যোগী হলেও নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে আসে সরকার। জানিয়ে দেওয়া হয় ব্রিজে ছোট গাড়ি চলাচল অব্যাহত থাকলেও বড় গাড়ি বা বাস চলাচল করানো যাবে না। পরবর্তী সিদ্ধান্ত ১২ অক্টোবর বিশেষজ্ঞ কমিটির সঙ্গে বৈঠক করে নেওয়া হবে বলে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, টালা ব্রিজের দুরবস্থার জন্য রেলকেই দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, রেল আমাদের কথা শোনে না। ওদের অনেক দিন আগেই আমরা একাধিক রেল ব্রিজ নিয়ে জানিয়েছিলাম। যেখানে টালা ব্রিজ ছিল। কিন্তু, তারা আমাদের কথা গুরুত্ব দেয়নি। আমরা চাই রেলের সঙ্গে আমরা একটা মউ স্বাক্ষর করতে। যাতে এই ব্রিজ গুলি যৌথ ভাবে সমীক্ষা করা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here