ডেস্ক: বিচারের গুরুভার যাদের কাঁধের উপর সেই বিচারকও এবার রেহাই পেলেন না বলিউডে ওঠা #মিটু ঝড়ের হাত থেকে। মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টের এক প্রাক্তন বিচারপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হলেন জেলা আদালতের এক বিচারপতি। যার জেরে আরও একবার ফের প্রশ্নের মুখে পড়ল বিচার ব্যবস্থা।

ওই মহিলা বিচারপতির অভিযোগ, এক আধবার নয় ২০১৩ সাল থেকে টানা দেড় বছর ধরে তার উপর যৌন হেনস্থা চালিয়ে গিয়েছেন হাইকোর্টের ওই বিচারপতি। ঘটনার জেরে ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই বাধ্য হয়ে চাকরি থেকে ইস্তফা দেন তিনি। কারণ বেআইনি ভাবে বদলি করে দেওয়া হয় তাঁকে। দীর্ঘ দিন পর এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এনে হাইকোর্টের ওই বিচারপতির বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন মহিলা বিচারপতি। ঘটনার জেরে ইতিমধ্যেই ওই বিচারপতির বিরুদ্ধে নোটিস জারি করেছে শীর্ষ আদালত। ৬ সপ্তাহ পর রয়েছে এই মামলার পরবর্তী শুনানি। তবে এই ঘটনায়, যৌন হেনস্থার বিরুদ্ধে সরাসরি প্রমাণ না থাকলেও ওই মহিলা বিচারপতিকে যে বেআইনিভাবে বদলি করা হয়েছে এটা স্পষ্ট।

উল্লেখ্য, শুরুটা হলিউড হলেও তার ছাড়া প্রথমে সেভাবে পড়েনি বলিউডে। তবে নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তর যৌন হেনস্থার অভিযোগের পর একের পর এক প্রকাশ্যে আসছে বলিউডের কেচ্ছা। তার আগেই অবশ্য বিকাশ বেহেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন কঙ্গনা রাণওয়াত। একের পর এক অভিযোগ উঠে এসেছে, সুভাষ ঘাই, সাজিদ খান, আলোক নাথ, কমেডিয়ান তন্ময় ভাট ও খাম্বার বিরুদ্ধে। এবার সেই তালিকায় অভিযোগ উঠল বিচার বিভাগেও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here