নিজস্ব প্রতিনিধি, জোকা পর্যন্ত মেট্রো রেল হয়েছে তাঁরই কল্যাণে। এবার ডায়মন্ড হারবার পর্যন্ত মেট্রো করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা শুনে অদূর ভবিষ্যতে মমতা যে দিল্লি দখল করবেন, সে ব্যাপারে নিশ্চিত তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

বাজপেয়ী জমানায় রেলমন্ত্রী ছিলেন মমতা। তখনই কলকাতায় মেট্রো চালু করার পরিকল্পনা করেন তিনি। সেই মতো কাজও শুরু হয়। পরে রেলমন্ত্রীত্ব ছেড়ে মমতা চলে আসেন কলকাতার রাজনীতিতে। যদিও মেট্রোর কাজ চলতে থাকে নিজস্ব গতিতে। ইতিমধ্যেই কাজ শেষের পথে জোকা-বিবাদি বাগ মেট্রোর। ইস্ট—য়েস্ট মেট্রোর কাজও চলছে দ্রুত লয়ে।

বেহালা পূর্ব ও পশ্চিমে নির্বাচন হবে চতুর্থ দফায়, শনিবার। বৃহস্পতিবার শেষবেলার প্রচারে বেহালায় এসে মমতা মেট্রো রেলকেই প্রচারের হাতিয়ার করেন। তিনি বলেন, আমি থাকলে এই জায়গায় এক বছরেই মেট্রো করে দিতাম। আমি ভবিষ্যতটা জানতাম। সবই আমার করা। এবার জোকা থেকে ডায়মন্ড হারবার পর্যন্ত মেট্রো করে দেব। আমি জানি কীভাবে কাজ করতে হয়।

লোকসভা নির্বাচনের আগে আগেই মমতা উদ্যোগী হয়েছিলেন তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনে। পরে উত্তর প্রদেশের দুই মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব ও মায়াবতী বেঁকে বসায় মমতার সে প্রচেষ্টা অঙ্কুরেই বিনাশ হয়।

চলতি বিধানসভা নির্বাচনে দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন মমতা চিঠি দেন বিজেপি-বিরোধী নেতাদের। রাজ্য তো বটেই, কেন্দ্র থেকেও বিজেপিকে উতখাত করতে কার্যত পণ করেন তিনি। তারই অঙ্গ হিসেবে বিজেপি বিরোধী নেতানেত্রীদের চিঠি দেন তৃণমূল নেত্রী। সেই চিঠিতে সাড়াও মিলেছে ভালোই। কংগ্রেস ছাড়া আর প্রায় সব দলই সাড়া দিয়েছেন মমতার ডাকে। স্বাভাবিকভাবেই উজ্জ্বল হয়েছে তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের সম্ভাবনা। অদূর ভবিষ্যতে রাজ্যের ভার ঘনিষ্ঠ কাউকে দিয়ে মমতা স্বয়ং দিল্লি যাবেন বলেই ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা। যে কারণে মমতা এদিন মেট্রো করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন বলে অভিমত তাঁদের।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here