ডেস্ক: আসন্ন দ্বাদশ আইপিএলের জন্য প্রত্যেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি নিজেদের মতো করে নিজেদের দল সাজাতে ব্যস্ত। ইতিমধ্যেই রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর থেকে কুইন্টন ডি’ কককে বেশ বড় অঙ্কের ট্রান্সফার ফি দিয়ে নিজেদের ঘরে তুলেছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। প্রসঙ্গত, আইপিএল ১২ সিজনে এক নয়া সংযোজন হয়েছে। যার নাম ‘ট্রেড অফ’। এর মাধ্যমে নিলাম ছাড়া যে কোনও দল অন্য দল থেকে খেলোয়াড়কে ট্রান্সফার ফি-র মাধ্যমে কিনে নিতে পারে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের মতো এবার নিজের দল সাজাতে নড়ে চড়ে বসেছেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অন্যতম কর্ণধার প্রীতি জিন্টা। তবে কোনও ট্রেড অফ দিয়ে খেলোয়াড় নিয়ে আসা নয়, একেবারে কোচ বদল দিয়ে নিজের দল নয়া অবতারে সাযাতে শুরু করলেন ‘ক্যাডবেরি গার্ল’। মাইক হেসনকে দ্বাদশ আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হেড কোচের দায়িত্বে দেখা যাবে।

এখনও পর্যন্ত আইপিএল খেতাব জেতেনি কিংস ইলেভভেন পাঞ্জাব। কখনও কোচ বদল, তো কখনও অধিনায়ক ও খেলোয়াড় বদল করেও আখেড়ে কোনও লাভ হয় নি দলের। তবে এবার হেসনকে পেয়ে আশাবাদী ফ্র্যাঞ্চাইজি। অস্ট্রেলিয়ার ব্র্যাড হজের পরিবর্তে হেসনকে হেড কোচ হিসেবে এবারে দেখা যাবে। তাঁর সঙ্গে দু’বছরের চুক্তি করেছে পাঞ্জাব। হেসন তাঁর নিজস্ব কোচিং স্টাফদের নিয়েই পাঞ্জাব সংসার গোছাবেন। তবে নতুন হেড কোচের আগমনে মেন্টর তথা ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার বীরেন্দ্র সেহওয়াগের অবস্থান কী হবে, সেই নিয়েই দেখা দিয়েছে ধোঁয়াশা।

প্রসঙ্গত, কয়েক মাস আগেই নিউজিল্যান্ডের কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি নিয়েছিলেন হেসন। যদিও তাঁর চুক্তি ২০১৯ বিশ্বকাপের পর শেষ হয়ে যাবে। তাঁর এই বিরতিকে অনেকেই সাময়িক ভেবেছিলেন। কিন্তু তার মধ্যেই কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হেড কোচের ভূমিকায় দেখা যাবে তাঁকে। আইপিএলে তৃতীয় কিউয়ি কোচ হিসেবে দেখা যাবে হেসনকে। এর আগে ড্যানিয়েল ভেত্তোরি ও স্টিফেন ফ্লেমিংকে আইপিএলে হেড কোচের ভূমিকায় দেখা গেছে। ভেত্তোরি গত মরশুম পর্যন্ত আরসিবি-র হেড কোচের দায়িত্বে ছিলেন। আর ফ্লেমিং এখনও পর্যন্ত চেন্নাই সুপার কিংসের হেড কোচ আছেন। আর এবার এলেন হেসন। এখন দেখা যাক, নতুন হেড কোচ পেয়ে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব দ্বাদশ আইপিএল খেতাব জেতে কিনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here