নিজস্ব প্রতিনিধি: দল ছেড়ে যারা বিজেপিতে গিয়েছেন, তারা অনেক উপঢৌকন নিয়ে গেছেন। কিন্তু তাঁদের পেছনে লেজও যায়নি। আমাদের দলে কাউকে ডাকতে হচ্ছে না। অন্য দল ছেড়ে খোলা মনে নিজেরা স্বতঃস্ফূর্ত হয়ে এসে আমাদের দলে যোগদান করছেন। বৃহস্পতিবার হাওড়ায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে একথা বলেন হাওড়া সদরের চেয়ারম্যান তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান অরূপ রায়। রাজীব ব্যানার্জি-সহ দলবদলুদের উদ্দেশে নাম না করে এদিন অরূপ রায় বলেন, ‘যে মমতাদিকে মা বলেছে, মা-কে যদি সে খারাপ কথা বলে সবাই তাকে গদ্দার বলছে। দল থেকে সব কিছু সুবিধা নিয়ে, সব কিছু গুছিয়ে নিয়ে তারা চলে গিয়েছে। যখন দেখছে দল আর গোছাতে দেবে না, তখন তারা দল ছেড়ে চলে যাচ্ছে। এদের মানুষ গদ্দার বলছে।‘

উল্লেখ্য, বিধানসভা ভোটের আগে এদিন হাওড়ায় শক্তিবৃদ্ধি হল তৃণমূলের। বিভিন্ন দল থেকে কয়েক হাজার কর্মী-সমর্থক যোগ দিলেন তৃণমূলে। অরূপ রায়ের দাবি, স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে এরা তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। ভোটের মুখে হাওড়ায় বিজেপি, সিপিএম-সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল থেকে প্রায় কয়েক হাজার কর্মী-সমর্থক এদিন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শিবপুর কাজিপাড়া দীনবন্ধু কলেজ সংলগ্ন এলাকায় ৪০ নম্বর ওয়ার্ড তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় তাদের হাতে দলের পতাকা তুলে দেন তৃণমূল কংগ্রেসের হাওড়া সদরের চেয়ারম্যান অরূপ রায়। তৃণমূলের দাবি, এদিন বিজেপি, সিপিএম, আইএসএফ, মিম প্রভৃতি রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ-সহ প্রায় সাড়ে তিন হাজার কর্মী-সমর্থক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। রান্নার গ্যাস, পেট্রোল, ডিজেল-সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে এদিন এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয় তৃণমূল কংগ্রেসের তরফ থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here