kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি হলেন করোনা আক্রান্ত রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবারই উডল্যান্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে মন্ত্রীকে। তাঁর চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ড ৭৭ বছর বয়সী শোভনদেববাবুকে পরীক্ষা করে জানায়, মন্ত্রীর উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে। শারীরিক দুর্বলতা রয়েছে। সামান্য জ্বর ছাড়া শ্বাসকষ্ট বা অন্য কোনও কোভিড উপসর্গ নেই। শরীরের অন্য সমস্ত মাপকাঠিও ঠিকঠাক। সেই কারণে মন্ত্রীকে কোনওরকম অক্সিজেন সাপোর্ট দিতে হচ্ছে না।

গত ১৮ ফেব্রুয়ারি কোভিড-১৯ পজিটিভ হন শোভনদেব। এরপর থেকে হোম আইসোলেশনেই ছিলেন তিনি। সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই কোমরের সমস্যা নিয়ে ভুগছিলেন মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। গত ১০ ফেব্রুয়ারি এসএসকেএম হাসপাতালে গিয়েছিলেন সেই সংক্রান্ত চিকিৎসার জন্য। এরপর থেকেই জ্বরে আক্রান্ত হন। সর্দি, কাশি-সহ নানা উপসর্গ দেখা দেয়। বয়সও বেশি। তাই চিকিৎসকরা বর্ষীয়ান ওই মন্ত্রীকে করোনা পরীক্ষার পরামর্শ দেন। এরপরই দেখা যায় রিপোর্ট পজিটিভ।নিজে টুইট করেই সে কথা জানান বিদ্যুৎমন্ত্রী। তবে বিশেষ কোনও অসুবিধা না থাকায় হোম আইসোলেশনেই ছিলেন তিনি।

তৃণমূলের একাধিক মন্ত্রী-বিধায়ক এর আগে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। রাজ্যের মন্ত্রীদের মধ্যে প্রথম করোনা আক্রান্ত হন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু। হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনিও। করোনা জয় করে এখন তিনি সুস্থ। করোনা আক্রান্ত হন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথও। এ ছাড়াও তৃণমূলের প্রবীণ নেতা, হাওড়া শিবপুর কেন্দ্রের বিধায়ক জটু লাহিড়িও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। অন্যদিকে বিজেপির লকেট চট্টোপাধ্যায়, দিলীপ ঘোষ কিংবা সিপিএমের ফুয়াদ হালিমের শরীরেও থাবা বসায় এই মারণ ভাইরাস। এখন সকলেই সুস্থ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here