ডেস্ক: একদিকে দেখে নাবালিকা ধর্ষণ রুখতে আরও কড়া হচ্ছে আইন। অপরদিকে পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে নাবালিকাদের ধর্ষণ ও নিগ্রহ। কোথাও অভিযুক্ত হচ্ছেন পূজারী, কোথাও বা মৌলবী। নাবালিকা ধর্ষণের এই প্রবণতাকে মানসিক ব্যাধি না বলে বরং ‘মহামারী’ আখ্যা দেওয়াই শ্রেয়। এই মহামারীর এক নতুন বৈচিত্র দেখা মিলল বিহারে। এক নাবালিকা, সে ক্রমাগত আর্তি করে চলেছে তাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু কিছু মানুষরূপী নরখাদক যেন তাকে আরও জাপ্টে ধরছে এবং সেই সঙ্গে চলছে অকথ্য অত্যাচার।

কেউ বা তার উপর উঠে তাকে নিগ্রহ করছে, কেই বা ক্রমাগত তার পোশাক খুলে নেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছে। অন্যদিকে মেয়েটি নিজের আব্রু রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এবং এই পুরো ঘটনার ভিডিও রেকর্ড করে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে। একজন নাবালিকার উপর একদল যুবকের এই অকথ্য অত্যাচারের ঘটনা সামনে এসেছে বিহারের জেহানাবাদ জেলা থেকে। শনিবার এই ঘটনার ভিডিও প্রকাশ্যে আসায় শোরগোল পড়ে যায়। ভিডিওটি খতিয়ে দেখেই এই ঘটনায় জড়িত চার যুবককে দ্রুততার সঙ্গে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে এই ঘটনায় জড়িত আরও চার-পাঁচ জনের উদ্দেশ্যে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

এই ঘটনার পর নির্যাতিতার পরিবারের তরফে কোনও অভিযোগ দায়ের না করা হলেও একটি তদন্তকারী দল গঠন করে পুলিশ। জেহানাবাদ পুলিশের এসএইচও জানান, ‘অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ধর্ষণ, মৃত্যুদণ্ডযোগ্য অপরাধ এবং পকসো আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’ অন্যদিকে, ডিএসপি মণীশ জানান, ‘ঘটনাটি কোথাকার তা বোঝা না গেলেও বাইকের রেজিস্ট্রেশন নম্বরের সূত্র ধরে তদন্তের কাজ চালানো হচ্ছে।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here