মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনাই এমনিতেই বেহাল দশা দেশের শ্রমিক শ্রেণীর মানুষের। এতদিনে ভয়াবহতার বহু চরম দৃশ্য দেখে ফেলেছে দেশবাসী। তারই সঙ্গে যোগ হলো আরো একটি ঘটনা। গুজরাটের সুরাটে চোর সন্দেহে একজনকে পিটিয়ে খুন করল স্থানীয়রা। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাটের সুরাটের পন্ডেশ্বরা এলাকায়। জানা গেছে ৩০ বছর বয়সী বিহারের ওই শ্রমিকের নাম সঙ্গম পন্ডিত। নৃশংসভাবে গণপিটুনি ও খুনের অভিযোগে ইতিমধ্যে ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছেন স্থানীয় সতীশ প্যাটেল নামের এক কাউন্সিলর। জানা গিয়েছে গুরুতর আহত অবস্থায় সঙ্গমকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে ওই ছয়জনের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় দায়ের করা হয় মামলা। হাসপাতালে মৃত্যুর পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে ভেস্তানর নামের এক এলাকায় গিয়েছিল সঙ্গম পন্ডিত। রাত দুটো নাগাদ সেখান থেকে ফেরে সে। এরপর পথ ভুলে ভৈরব নগরে পৌঁছে যায় সঙ্গম। সেখানে স্থানীয় কাউন্সিলর সহ বেশ কয়েকজন লোক তাকে চোর সন্দেহে আটক করে এবং মাথায় ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে। ঘটনাস্থলেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে ওই যুবক। পরে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে তার মৃত্যু হয়। যদিও সেখানে যে তাকে গণপিটুনি দেওয়া হয়েছে তার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ আক্রান্ত ওই যুবকের শরীরে একাধিক ক্ষত চিহ্ন রয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here