national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কে ভারতের নাগরিক আর কে নয়, এনআরসি আতঙ্কে তা নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছে গোটা। খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দেশজুড়ে এনআরসির দাবিতে সোচ্চার হলেও, চাপের মুখে জানিয়ে দিয়েছেন এখনই বিষয়টি নিয়ে ভাবনা চিন্তা করছেন না তারা। এহেন পরিস্থিতির মাঝে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাগরিকত্বের প্রমাণ চেয়ে আরটিআই করেছিলেন এক ব্যক্তি। তার উত্তরে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দফতর জানিয়ে দিল, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাগরিকত্বের কোনও কাগজপত্র নেই, জন্মসূত্রেই তিনি ভারতীয়।

জানা গিয়েছে, গত ১৭ জানুয়ারি সুভঙ্কর সরকার নামে এক ব্যক্তি তথ্যের অধিকার আইনে জানতে চান দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাগরিকত্বের কোনও প্রমাণ রয়েছে কিনা। সম্প্রতি তার উত্তর দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের সচিব প্রবীণ কুমার জানান, ১৯৫৫ সালে নাগরিকত্ব আইনের ৩ ধারা অনুযায়ী নরেন্দ্র মোদী নরেন্দ্র মোদী জন্মসুত্রেই ভারতের নাগরিক। তবে এই বিষয়ে কোনও কাগজপত্র দেখায়নি প্রধানমন্ত্রী দফতর। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর আরটিআইয়ের সেই রিপোর্ট ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রশ্ন উঠছে, প্রধানমন্ত্রী নিজের কাগজ দেখাবেন না অথচ গোটা দেশবাসীর কাগজ কীভাবে চাইছেন?

উল্লেখ্য, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সিএএ নিয়ে ইতিমধ্যেই উত্তাল হয়েছে গোটা দেশ। পাশাপাশি অসমে এনআরসি ও ডিটেনশন ক্যাম্পের পর প্রশ্ন উঠেছে নাগরিকত্বের প্রমাণ যদি চাওয়া হয় সেক্ষেত্রে কি জন্মনথিই নাগরিকত্বের প্রমাণ হবে? যদি তাই হয়, সেক্ষেত্রে দেশের বেশীরভাগ মানুষের কাছেই নেই সেই প্রমাণপত্র। খোদ প্রধানমন্ত্রী কাগজ না দেখানোয় নতুন করে জল্পনা চড়েছে এই প্রশ্নে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here