ডেস্ক: ছাত্রজীবনেই স্বদেশিকতার শিক্ষা দিয়ে একটি অনুশাসিত যুবকদল তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিল মোদী সরকার। যার ফলে প্রত্যেক বছর ১০ লক্ষ করে ছাত্রদের ১২ মাস ধরে মিলিটারি ট্রেনিং করানোর প্রস্তাব গ্রহণ করার কথা সরকার ভাবছে। এমনকি এই ট্রেনিং চলাকালিন দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণি উত্তীর্ণ হয়ে কলেজে ভর্তি হওয়া ছাত্রছাত্রীদেরদের নিশ্চিত ভাতা দেওয়ার কথাও ভাবা হচ্ছে। জানা গিয়েছে যে, সরকার এই এই প্রস্তাবের নাম ‘ন্যাশনাল ইয়ুথ এমপাওয়ারমেন্ট স্কিম’ দিয়েছে। এই প্রস্তাবে আরও বলা হয়েছে যে, সেনা, আধা সেনা এবং পুলিশে ভর্তি হওয়ার জন্য এই ১২ মাসের ট্রেনিং করা বাধ্যতামূলক হবে। এই ট্রেনিং এর দ্বারা ছাত্রছাত্রীদের জাতীয়তাবাদ, অনুশাসন, আত্মগৌরব ছাড়াও আইটি কৌশল, দুর্যোগ মোকাবিলা, ভারতীয় মূল্যবোধ, যোগ, আয়ুর্বেদ এবং প্রাচীন ভারতীয় দর্শন ইত্যাদি ব্যাপারে শিক্ষা দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ভারতকে ‘বিশ্বগুরু’ এবং ২০২২ এর মধ্যে নিউ ইন্ডিয়া বানানোর লক্ষ্যের প্রথম ধাপ হিসেবে এই প্রস্তাবকে ধরা হচ্ছে। সারাবছর ধরে চলা এই কার্যক্রম বিশেষ করে গ্রামীণ ক্ষেত্রের যুবকদের কথা চিন্তা করেই লেখা হয়েছে। সূত্রের খবর,এই প্রকল্পটি অর্থায়ন করার জন্য এনসিসি, এনএসএস, উন্নয়ন বিভাগে বিদ্যমান বাজেটের মাধ্যমে তহবিল থেকে অর্থসাহায্য করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here