ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নয় প্রচারমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদীকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধী। এক সাক্ষাৎকারে একটি সংবাদ সংস্থাকে রাহুল বলেন, নরেন্দ্র মোদী নিজেকেই প্রচার করছেন। আর দম্ভে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। তাঁর নেতৃত্বে দেশের অর্থনীতি ব্যর্থ হয়েছে। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ করতেও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন মোদী। এর ফল তিনি পাবেন। কারণ, জনগণই শিক্ষক। তাঁরা সিদ্ধান্ত নেবেন। তাঁকে শিক্ষা দেবেন।

রাহুল গান্ধীর অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর দফতরের মাধ্যমে মূল বিষয়গুলোকে সংবাদমাধ্যমে বদলে দেওয়া হচ্ছে। ২০১৪ লোকসভার আগে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মোদী, সেসব পূরণ করেননি। ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজের প্রচার করছেন মোদী। মিথ্যার উপর ভিত্তি করে আত্মপ্রচার করছেন তিনি। তাঁর প্রচার এমনই যে, ভারতের যেকোনও সমস্যার সমাধান তিনিই করে দিতে পারেন। এর জন্য কারও পরামর্শ তাঁর দরকার নেই। রাগার আরও অভিযোগ, মোদী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করেছেন। গত পাঁচবছরে দেশজুড়ে ঘৃণা ও কুকথা বেড়েছে। সমাজে হিংসা বেড়েছে। তফসিলি জাতি-উপজাতিদের অধিকারের উপর আক্রমণ নেমে এসেছে। ১৫ লক্ষ টাকা করে প্রতিটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে প্রদান, দুকোটি কর্মসংস্থান, ১০০ স্মার্ট সিটি এবং ৮০ লক্ষ কোটি কালো টাকা উদ্ধারের প্রতিশ্রুতি ভাঁওতায় পর্যবসিত হয়েছে।

এছাড়াও সংবাদমাধ্যমের উপর চাপ সৃষ্টি করছে মোদী সরকার। সংবাদমাধ্যম দফতরে ফোন করে সিবিআই, ইডিকে ব্যবহার করে হুমকি দিয়ে পক্ষে প্রচার করতে বাধ্য করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন রাহুল। সংবাদমাধ্যমের উপর চাপ সৃষ্টির তীব্র নিন্দা করে রাহুল বলেন, এই চাপের মুখেও বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম তাদের কাজ করে যাচ্ছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষাণার আওয়াজ তুলে ক্ষমতায় এলেও প্রতিটি দুর্নীতি কান্ডে মোদীর উৎসাহ রয়েছে বলেও অভিযোগ রাহুলের।
ওই সাক্ষাৎকারে রাহুল জানান, বেকারত্ব, কৃষকদের সমস্যা, আর্থিক দুরবস্থা এবং ব্যক্তি মোদীর দুর্নীতিই কংগ্রেসর নির্বাচনের মূল ইস্যু। তিনিই কি পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী, প্রশ্ন করা হলে রাহুল বলেন, এটা ঠিক করবেন ভারতের জনগণ। কংগ্রেসের আদর্শে দেশের আরও ভাল করাটাই আমার কাজ। এছাড়াও এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, গত নির্বাচনে দলের ফল খারাপ হলেও এবার অনেক বেশি মানুষের সমর্থন তাঁরা পাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here