pic-kolkata bengali news

ডেস্ক: আগে ছিলেন ‘স্পিডব্রেকার দিদি’। এবার হলেন ‘স্টিকার দিদি’। বাংলায় সভা করতে এসে ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নয়া নামকরণ করলেন বিজেপি ক্যাপ্টেন নরেন্দ্র মোদী। সকালে মিষ্টি মুখে মমতার সঙ্গে বন্ধুত্বের কথা বললেও বিকেল হতেই স্বমহিমায় ফিরলেন নমো। বুধবার তাহেরপুরের জনসভা থেকে মোদী অভিযোগ তুলে বলেছেন, কেন্দ্রের সব প্রকল্পের উপর নিজের স্টিকার মেরে দেন এ রাজ্যর মুখ্যমন্ত্রী। তাই মমতাকে স্টিকার দিদি অ্যাখ্যা তাঁর।

নদিয়ার তাহেরপুরের সভায় তোপ দেগে মোদী বলেন, মমতাদি শুধু কেন্দ্রের প্রকল্পের উপর স্টিকার সেঁটে দিয়ে নিজের প্রকল্প বলে চালান। দিল্লি থেকে আমরা কোনও প্রকল্পের জন্য যে টাকা পাঠাই, দিদি তাতে নিজের স্টিকার লাগিয়ে দেন। ধরুন দিল্লি থেকে থেকে বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের জন্য কেন্দ্র টাকা পাঠিয়েছে। দিদি তাতে নিজের স্টিকার মেরে দিয়েছেন। এই যে দিদির দু টাকা কিলো চাল, সেই টাকাও কেন্দ্র দেয়। কেন্দ্র থেকে বাড়ি বানানোর জন্য যে টাকা দেওয়া হয় সেটা নিয়েও দিদি দলের লোকেরা নয় ছয় করে। শুধু স্টিকার মারতেই ওস্তাদ তৃণমূল।

এদিনের সভায় দাঁড়িয়ে মোদী আরও বলেন, বাংলা দিদিকে সম্মান দিয়েছিল কিন্তু দিদি বাংলার মানুষকে ধোঁকা দিয়েছেন। ধোঁকা দেওয়ার ফল এবার তাঁকে দিতে হবে। পিসি-ভাইপোর খেলা শেষ। বাংলার মানুষ জেনে ও বুঝে গিয়েছেন সব। মানুষ তাই বিজেপিকে বেছে নিয়েছে। বাংলার মানুষ এখন বিজেপির সঙ্গে রয়েছে। এই লোকসভা ভোটেই তা হাড়ে হাড়ে টের পাবে তৃণমূল কংগ্রেস।

বস্তুত সিপিএম ও কংগ্রেস যে এ রাজ্যে জমি হারিয়েছে সেই সম্পর্কে ভালভাবেই ওয়াকিবহাল নরেন্দ্র মোদী। তাই বিজেপিকেই একমাত্র বিকল্প শক্তি হিসেবে তুলে ধরতে মরিয়া তিনি। সেই কারণেই এদিন কেন্দ্রের একের পর এক প্রকল্পকে তুলে ধরে মমতাকে কটাক্ষ করেন তিনি। কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থ্য প্রকল্প ‘আয়ুষ্মান ভারত’ এ রাজ্যে লাগু না হওয়ার জন্যও রাজ্য সরকারের সমালোচনায় সরব হন মোদী। বলেন, দিদি কো বাঁচানা মুসকিল নেহি, না মুমকিন হ্যা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here