narendra modi

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ধীরে ধীরে সীমান্তে পরিস্থিতি শান্ত হওয়ার মাঝেই সোমবার রাতে গালোয়ান ভ্যালির ঘটনা, আহত-নিহত দুই দেশের একাধিক জওয়ান। ইন্দো-চিন সীমান্তে বাজছে যুদ্ধের ডঙ্কা। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার রাতেই জরুরি বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ও সেনাপ্রধান এমএম নারাভানে।

গতকাল গালোয়ান ভ্যালিতে দুই সেনার হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ার খবর সামনে আসতেই উচ্চপর্যায়ের একাধিক বৈঠক হয়। কিন্তু সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকটি রাত দশটার সময় করেন প্রধানমন্ত্রী। সীমান্তের পরিস্থিতি, সেনাবাহিনীর অবস্থা ও সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে কী কী হতে পারে, তারই ‘ব্লুপ্রিন্ট’ ওই উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে নির্ধারণ হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

প্রসঙ্গত, লাদাখের গালোয়ান ভ্যালিতে সোমবার রাতে হঠাৎ করেই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে দুই দেশের সেনা। প্রাথমিক ভাবে জানা যায় ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ভারতের এক সেনা অফিসার ও দুই জওয়ান।

ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রে মঙ্গলবার দুপুরে জানানো হয়, ‘একদিকে যখন গোটা পরিস্থিতি শান্ত করার প্রক্রিয়া চলছে, তখন গতকাল রাতে গালোয়ান ভ্যালিতে দুই দেশের সেনা হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে। এতে ভারতের এক অফিসার সহ আরও দুই জওয়ান শহিদ হয়েছেন। বর্তমানে দুই দেশের সেনাই এই বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসেছে।’

কিন্তু রাতের বেলা জানা যায়, শুধু দুই জওয়ান ও এক কর্নেল নন, চিন ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর সংঘর্ষে ভারতীয় সেনার কমপক্ষে ২০ জন জওয়ান শহিদ হয়েছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে এই খবরের স্বীকার করে নেওয়া হয়। শুধু তাই নয়, এই সংঘর্ষে চীনের ৪৩ জন সেনা মারা গিয়েছে বলেও জানা যায় সূত্র মারফত। ভারতীয় সেনার তরফেও এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে নেওয়া হয়।

একাধিক সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, সংঘর্ষে বন্দুকের ব্যবহার না হলেও ভারতীয় সেনারা খালি হাতেই চিনা সেনার সম্মুখীন হন। কিন্তু চিনা ফৌজ রড, কাঁটাতার জড়ানো লাঠি দিয়ে হামলা করে। যদিও ভারতীয় জওয়ানরা খালি হাতেই ৪৩ চিনা সেনাকে ঘায়েল (মৃত ও আহত) করে। চিনের তরফে বলা হয়, ভারতীয় সেনা তাদের সীমান্তে ঢুকে পড়ে। ভারত সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। চিনের তরফে হতাহতের খবর স্বীকার করা হলেও, কোনও নির্দিষ্ট সংখ্যা প্রকাশ করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here