modi

ডেস্ক: মোদীর বুধবারের ব্রিগেড সভাকে ঘিরে চৈত্রের রোদ্দুরে সকাল থেকেই তেতে ছিল শহর কলকাতা। মোদী আসার আগে পর্যন্ত একের পর এক ছোট বড় বিজেপি নেতা কাঁপাচ্ছিলেন ব্রিগেড মঞ্চ। তবে ঠিক সাড়ে ৪ টে নাগাদ নরেন্দ্র মোদী সভায় উঠতেই যেন নতুন ঢেউ খেলে গেল ব্রিগেড মঞ্চে। নিজের বক্তব্যের শুরুতেই তিনি বলেন, ‘আপনাদের প্রেমে আমি অভিভূত। ২৩ মে যা ঘটবে তার ঢেউ এই বঙ্গভূমি থেকে উঠেছে। এই বাংলা বিপ্লবী ক্ষুদিরামের বাংলা সূর্য সেনের বাংলা, গুরুদেবের বাংলা, লালনের বাংলা। কাব্য ও বিপ্লবের অনন্যভূমি এই বাংলা।’ এদিনের ব্রিগেড মঞ্চে নিজের ৫ বছরের রিপোর্ট কার্ড পেশ করার পাশাপাশি, কড়া ভাষায় তৃণমূল ও কংগ্রেসকে আক্রমণ শানাতেও ভোলেননি তিনি।

বিগত ৫ বছরের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরে মোদী বলেন, ‘এই সরকারের সৌজন্যে ঘটেছে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, এয়ার স্ট্রাইক, মহাকাশে স্ট্রাইক, ডিজিটাল ইন্ডিয়া, নতুন ভারতের দিকে এগোচ্ছে দেশ, ভারতে যা হচ্ছে তা একটা সময় স্বপ্ন ছিল। ৫ বছরে যা হয়েছে তা মোদী করেনি। তা আপনাদের জন্যই হয়েছে। আপনাদের আশীর্বাদে হয়েছে।’ এরপরই তিনি বলেন, ‘স্বামীজির স্বপ্ন নিয়ে আমরা যখন এগোচ্ছি এখন একশ্রেণীর মানুষ আছে যারা বিরোধিতা করছে। প্রমাণের পর প্রমাণ চাইছে। এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চাইছে। স্যাটলাইট ধ্বংস করে আমরা এখন পৃথিবীর চতুর্থ দেশ। অথচ তাঁকে নাটক বলছে। দিদি ও তার সঙ্গীরা দেশবিরোধী মন্তব্য এই কারণে কারণ ওনাদের রাজনীতির ভিত কেঁপে উঠেছে।’

এরপরই কংগ্রেসকে আক্রমণ শানিয়ে তিনি বলেন, সম্প্রতি কংগ্রেস প্রতিশ্রুতি পত্র প্রকাশ করেছে। যেখানে ওরা বলেছে, সেনার সুরক্ষা কবচ সরিয়ে দেওয়া হবে। যে আইন সেনাকে সুরক্ষা কবচ দেয় তা সরিয়ে দেবে বলছে কংগ্রেস। আপনারা বলুন কংগ্রেসের এই প্রতিশ্রুতি কি পাকিস্তানকে সাহায্য নয়? কংগ্রেস সর্বদা জঙ্গির সামনে মাথা ঝুঁকিয়েছে। দেশের উন্নয়নে সর্বদা মিথ্যা বলেছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূল এই দোষের ভাগীদার।’ এরপর ফের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরে মোদী বলেন, ‘বিজলি, গ্যাস, ৫ লাখ টাকার ইনকাম ট্যাক্স মাফ, গরিবদের সংরক্ষণ এই সমস্ত কিছু আমরা করেছি। দুর্নীতির হিসাব চলছে গোটা পরিবার এখন জামিনে রয়েছেন। বাংলাতেই তোলাগিরি গুন্ডাগিরি বেশিদিন চলবে না। আমি ও আপনারা মিলে এমন বাংলা বানাব যা বাম ও টিএমসি মুক্ত হবে। আপনাদের ভোটে আমরা বিকাশের নতুন শিখর ছোঁব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here