ডেস্ক: আগামীকাল সম্ভবত লালবাজারে হাজিরা দিচ্ছেন না ভারতীয় ক্রিকেট তারকা মহম্মদ শামি৷ আজ মঙ্গলবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শামিকে সমন পাঠায় লালবাজার৷ কিন্তু জানা যাচ্ছে, হাজিরার জন্য আরও কিছুটা সময় চেয়ে লালবাজারে চিঠি পাঠিয়েছেন শামির আইনজীবী৷ ফলে আইপিএল ম্যাচ চলার মধ্যে আপাত স্বস্তিতে ভারতীয় পেজ তারকা৷

লালবাজার থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আগামীকাল বুধবারই তলব করা হয়েছে শামিকে৷ গতকাল সোমবার ইডেনে কেকেআর-এর সঙ্গে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস -এর ম্যাচ ছিল৷ সেই সূত্রে গতকালই কলকাতা ঢুকেছিলেন ডেয়ারডেভিলস-এর এই ক্রিকেট তারকা৷ কিন্তু লালবাজার থেকে তাঁকে তলব না করায় স্ত্রী হাসিন পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন৷ প্রশ্ন করেন, শামি সকলকাতা এলেও তাঁকে কেন তলব করল না পুলিশ? তারপরেই আজ মঙ্গলবার শামিকে তলব করে লালবাজার৷

শামি ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ জানিয়ে গত ৮ মার্চ লালবাজারে অভিযোগ জানিয়েছিলেন শামি-জায়া হাসিন। শামির দাদা হাসিব তাকে ধর্ষণ করে বলেও অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি। আদালত শামিকে পনেরো দিনের মধ্যে হাজিরা দিতে বলেছিল। কলকাতা পুলিশের তরফে শামির দাদাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হলেও তিনি আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার পর্যন্ত সময় চেয়ে নিয়েছেন৷

স্ত্রীর হেনস্থা যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না শামির৷ আইপিএল ম্যাচে ক্রিকেটারের লিস্ট থেকে স্বামীর নাম সরানোর অনেক চেষ্টা করেও পারেননি৷ মহম্মদ শামির বিরুদ্ধে আনা স্ত্রীর গড়াপেটার অভিযোগে ভারতীয় ক্রিকেট তারকাকে ক্লিনচিট দিয়েছে বিসিসিআই৷ শামিকে অবিলম্বে গ্রেফতারের আবেদন জানিয়ে দেখা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেও৷ স্বামীর ম্যাচ আটকানোর শেষ চেষ্টা হিসেবে আইপিএল ম্যাচের কিছুদিন আগে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের সিইও হেমন্ত দুয়ার সঙ্গে দেখা করেছিলেন শামি-জায়া হাসিন জাহান৷ দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের সিইও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন, পারিবারিক সমস্যা নিজেদের মধ্যে মিটিয়ে নেওয়াই উচিত৷ তিনি চান না পারিবারিক ঝামেলার প্রভাব শামির পারফর্মেন্সে পড়ুক৷ এখন সেই পারফর্মেন্সেই আঘাত হানতে চাইছে স্ত্রী হাসিন৷ শামিকে মানসিক চাপে রাখতে ফের একবার নতুন মামলা রুজু করতে আদালতে যান হাসিন৷ আলিপুর পুলিশ কোর্টে গিয়ে নতুন একটি অভিযোগের মামলা রুজু করেন তিনি। শামির বিরুদ্ধে পারিবারিক হিংসার আইনে মামলা রুজু করেন। হাসিনের একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতেই আগামীকাল তলব করা হয়েছিল শামিকে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here