kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হুগলি: নাবালিকাকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল এক প্রৌঢ়ের বিরুদ্ধে। ঘটনা জানাজানির পর অভিযুক্ত প্রৌঢ়কে ধরে ইলেকট্রিক পোস্টে বেঁধে মাথার চুল কেটে দিল এলাকাবাসী। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ওই প্রৌঢ়কে উদ্ধার করে আটক করে। সোমবার সন্ধ্যায় চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির পাণ্ডুয়া থানার মিরপাড়ায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ওই এলাকার বছর ১৩-র এক কিশোরী বাড়ির বাইরে বাথরুমে যায়। সেই সময় প্রতিবেশী এক প্রৌঢ় পেছন পেছন বাথরুমে ঢুকে পড়ে। নাবালিকাকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানি করতে শুরু করে। ওই কিশোরীর চিৎকারে অভিযুক্ত পালিয়ে যায়। মেয়েটি ঘরে গিয়ে পরিবারকে এই কথা জানালে ক্ষোভে ফেটে পড়ে পরিবার ও স্থানীয় মানুষজন। অভিযুক্ত প্রৌঢ়কে ধরে এনে বিদ‍্যুতের পোস্টে বেঁধে চলে মারধর। কিল, চড়ের সঙ্গে তার মাথার চুল কেটে দেয় এলাকাবাসী। ঘটনার কথা স্বীকার করে ওই ব্যক্তি।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ওই প্রৌঢ়কে গ্ৰামবাসীদের হাত থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় পাণ্ডুয়া থানার পুলিশ। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছে নির্যাতিতা কিশোরীর পরিবার ও প্রতিবেশীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here