national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এ যেন ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী! না, পরবর্তী লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের প্রত্যাবর্তনের ভবিষ্যত নয়, বরং অন্যান্য ব্যাঙ্কের ক্ষতি হওয়ার ভবিষ্যত। বিভিন্ন সংস্থার বেসরকারিকরণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে তো দুষছেই কংগ্রেস, এবার ব্যাঙ্কিং সেক্টরগুলির অবস্থার জন্য মোদী সরকারকে ছাড়তে রাজি নয় তাঁরা। ইয়েস ব্যাঙ্কের অবস্থার প্রেক্ষিতেই এবার অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলির ভবিষ্যত নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন সনিয়া তনয়। তাঁর আশঙ্কা, অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলিও হয়তো ধ্বংস হতে চলেছে।

রাহুল গান্ধীর কথায়, ভারতীয় অর্থনীতি এখন একটা অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। ব্যাঙ্কিং সিস্টেম এককথায় কাজ করছে না, ভেঙে পড়ছে। এই মুহূর্তে যা পরিস্থিতি তাতে তাঁর মনে হয় অন্যান্য আরও ব্যাঙ্ক ক্ষতির মুখে পড়তে পারে। এই মন্তব্য করে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি তোপ দেগে বলেন, গোটা পরিস্থিতির জন্য দায়ি বর্তমান বিজেপি সরকার। এই সরকারের আমলেই বহু লোক মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচুর টাকা চুরি করেছে, তাই এ সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে দেশকে।

এই প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সরাসরি আক্রমণ করে রাহুল বলেন, ‘ভারতীয় ব্যাঙ্ক থেকে যারা টাকা চুরি করেছিল তাদের ধরে এনে সম্পূর্ণ টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। তাই আমি মোদী সরকারকে তাঁদের নাম জিজ্ঞাসা করেছিলাম। আমি অন্তত ৫০ জনের নাম জানতে চেয়েছিলাম কিন্তু কোনও উত্তর পাইনি।’ সম্প্রতি ইয়েস ব্যাঙ্ক নিয়ে যে টালমাটাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে সেই পরিপ্রেক্ষিতেই মোদী সরকারকে বাক্যবাণে বিদ্ধ করলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী।

আর্থিক সংকটে বাকি ব্যাঙ্কগুলির ন্যায়ে ইয়েস ব্যাঙ্কের দশাও শোচনীয়। নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার্থে তারা এখন কেন্দ্রীয় সরকারের শরণাপন্ন হয়েছে। তীব্র সংকটে চলা এই ব্যাঙ্ককে ১২,০০০ কোটি থেকে ১৪,০০০ কোটি টাকা মূলধন যোগানোর জন্য স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার নেতৃত্বে ব্যাংকগুলির একটি কনসোর্টিয়াম গড়ার প্রস্তাব দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। আগেই স্টেট ব্যাঙ্কের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে ইয়েস ব্যাঙ্কের ৪৯ শতাংশ শেয়ার কিনবে তারা। এর জন্য স্টেট ব্যাঙ্কের খরচ হবে ২ হাজার ৪৫০ কোটি টাকা। আসরে নেমেছে বন্ধন ব্যাঙ্কও। ইয়েস ব্যাঙ্কের এই পরিস্থিতির মধ্যে তাকে সাহায্যের জন্য ৩০০ কোটি টাকা ঢালার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বন্ধন ব্যাঙ্ক।

শুধু SBI বা বন্ধন ব্যাঙ্ক নয়, ইয়েস ব্যাঙ্ককে বাঁচাতে আসর নামার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে HDFC, Axis, ICICI, kotak Mahindra-র মতো বেসরকারি ব্যাংকগুলিও। ইতিমধ্যেই HDFC, ICICI ব্যাঙ্ক ইয়েস ব্যাঙ্ককে সাহায্য করার জন্য ১,০০০ কোটি টাকা লগ্নির কথা ঘোষণা করেছে। একইসঙ্গে Axis ব্যাঙ্ক ৬০০ কোটি এবং kotak Mahindra ব্যাঙ্ক ৫০০ কোটি লগ্নির কথা ঘোষণা করেছে। আরও জানা গিয়েছে, LIC-এও ইয়েস ব্যাঙ্কে লগ্নি করতে পারে। সবশেষে, স্টেট ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, তারা আরও ৭২৫০ কোটি টাকা ইয়েস ব্যাঙ্কে বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here