ডেস্ক: চোখের সামনেই ধ্বংস হয়ে গিয়েছে গোটা পরিবার। চলন্ত গাড়িতে জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত্যু হল মা ও দুই মেয়ের। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে দিল্লির অক্ষরধাম উড়ালপুড়ে। আচমকাই আগুন লেগে যায় গাড়িতে। রবিবার সন্ধে উড়ালপুলের ওপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিলেন উপেন্দ্র মিশ্র এবং তার পরিবার। চলন্ত গাড়িতেই আগুন ধরে যায়। এরপর উপেন্দ্রবাবু তার মেয়ে সিদ্ধিকে নিয়ে গড়ি থেকে বেরিয়ে আসে। কিন্তু ভেতরে আটকে পড়ে তার স্ত্রী এবং দুই কণ্যা।

উপেন্দ্র বলেন, মেয়েদের আবদার ছিল অক্ষরধাম মন্দির দেখা। তাই তাদের আবদার রাখতে তিনি অক্ষরধাম মন্দিরের উদ্দেশে যান। কিন্ত তার সঙ্গে যে এমন ঘটনা ঘটবে তা কেউই জানত না। তিনি আরও বলেন, বুঝতে পারিনি সে আমাদের জন্য মৃত্যু অপেক্ষা করেছিল। গাড়ি ফ্লাইওভারে উঠতে আগুন লেগে যায়। নিমেষের মধ্যে সবকিছু শেষ হয়ে গেল। সাহায্যের জন্য তিনি রাস্তার ধারে অনান্য গাড়িকে হাত দেখিয়ে থামানোর চেষ্টা করেন।

 

উপেন্দ্রবাবু বলেন, তিনি সাহায্যের জন্য একাধিকবার অনুরোধ করেন কিন্তু কেউই এগিয়ে আসেননি। বেশিরভাগ গাড়ি না থেমেই চলে যায়। এরপরে কয়েকজন এসে গাড়ির আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। গাড়ির কাঁচ ভেঙে উপেন্দ্রর স্ত্রী অঞ্জনা ও দুই মেয়েকে বের করে আনা হয়। কিন্তু যতক্ষণে অঞ্জনা ও তার দুই মেয়েকে নিয়ে আসা হয়, ততক্ষণে সব কিছুই শেষ হয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here