ডেস্ক: এইমূহুর্তে বায়োপিকের জোয়ারে ভাসছে বলিউড থেকে টলিউড দুনিয়া। রাজনীতি-সিনেমা-খেলা সব জগতেরই তাবড় তাবড় ব্যক্তিত্বদের নিয়ে বানানো হচ্ছে বায়োপিক। এবার সেই জোয়ারে সামিল হল ‘মিশনারিজ অব চ্যারিটি’র প্রতিষ্ঠাতা মাদার টেরেসার নাম। সম্প্রতি এই মহিয়সী নারীকে নিয়ে সিনেমা বানানোর ঘোষণা করেছেন পরিচালক সীমা উপাধ্যায়। জানা যাচ্ছে, সিনেমার নাম দেয়া হয়েছে ‘মাদার টেরেসা: দ্য সেন্ট’।

পরিচালক সীমা উপাধ্যায় জানিয়েছেন, হলিউড ও বলিউডের বেশ কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা থাকবেন মাদার টেরেসার জীবনীর ওপর নির্মিত এই সিনেমায়। তবে মাদার টেরেসা-চরিত্রে কাকে দেখা যাবে, তা গোপন রেখেছেন পরিচালক। সীমা উপাধ্যায় আশা করছেন, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আসছে বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

মাদার টেরেসা ছিলেন আলবেনীয় বংশোদ্ভূত ভারতীয় ক্যাথলিক সন্ন্যাসিনী ও ধর্মপ্রচারক। ১৯২৮ সালে তিনি আয়ারল্যান্ড হয়ে ভারতে আসেন। জীবনের বাকি অংশটুকু ভারতেই কাটিয়ে দেন তিনি। তার মধ্যেই ১৯৫০ সালে কলকাতায় গড়ে তোলেন ‘মিশনারিজ অব চ্যারিটি।’ ১৯৭৯ সালে মাদার টেরেসাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়। পরের বছরই অর্থাৎ ১৯৮০ সালে তাকে ভারতরত্নে সম্মানিত করে ভারত সরকার। ২০১৬ সালে পোপ ফ্রান্সিস তাকে ‘সন্ত’ হিসেবে স্বীকৃতি দেন। মাদার টেরেসা মারা যান ১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর। তবে দুনিয়াজোড়া খ্যাতির পাশাপাশি মাদার টেরেসা সমালোচিতও হয়েছিলেন। অনেকে সমালোচকদের চোখেই তিনি ছিলেন, ‘ধর্মীয় সাম্রাজ্যবাদী’।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরে বলিউডে বেশ কয়েকটি বায়োপিক নির্মিত হয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক। সিনেমা হয়েছে ইন্ডাস্ট্রির আলোচিত সমালোচিত ও বিতর্কিত অভিনেতা সঞ্জয় দত্তের জীবনী নিয়েও। ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে ঝাঁসির রানি লক্ষীবাঈ-কে নিয়েও ছবি বানিয়েছেন কঙ্গনা রানাউত।

চলতি বছরে লাইনে আছে আরও একাধিক বায়োপিক। এর মধ্যে আছে এক পা নিয়ে এভারেস্ট জয় করা অরুনীমার বায়োপিক, ভারতের প্রথম মহাকাশচারী বৈমানিক রাকেশ শর্মার বায়োপিক, রয়েছে সাইনা নেহেওয়াল, অভিনব ব্রিন্দার বায়োপিক। সেই তালিকায় এবার যুক্ত হলেন মাদার টেরেসা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here