kolkata bengali news

Highlights

  • মেয়ের মুখ দেখেননি মৌসুমি চ্যাটার্জি
  • মারা গিয়েছেন অভিনেত্রীর কন্যা পায়েল সিনহা
  • স্বামী দেখাশুনো করতেন না
  • দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব ছিল

 

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বর্ষীয়ান অভিনেত্রী মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে পায়েলের মৃত্যুর খবর সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় বলি মহলে। যদিও পায়েলের স্বামীর সঙ্গে চট্টোপাধ্যায় পরিবারের তিক্ততা প্রথম থেকেই ছিল। অভিনেত্রী অভিযোগ করেছিলেন, পায়েলের স্বামী ডিকি সিনহা তাঁর মেয়ের খেয়াল রাখতেন না। এমনকি হাসপাতাল থেকে আসার সময় পায়েলের চিকিৎসা বন্ধ করে দিয়েছিলেন ডিকি। তবে এবার মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে এক গুরুতর অভিযোগ করেন পায়েলের স্বামী।

সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে ডিকি সিনহা বলেছেন, মেয়ের মৃত্যুর পর একটিবারের জন্যও মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়কে দেখা যায়নি। পায়েলের শেষকৃত্যের সময় উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রীর স্বামী এবং কন্যা। জানা গিয়েছে, প্রথম থেকেই ডিকি সিনহার সঙ্গে মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়ের সম্পর্ক ভাল ছিল না। পায়েলের মৃত্যুর পর তা আরও খারাপ হতে শুরু করেছে। এমনকি বিয়ের পর গত ১০ বছরে পায়েল একটিবারও মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যাননি বলে জানা গেছে। পায়েলের মৃত্যুর পর এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেননি অভিনেত্রী। তবে অনেকমাস আগেই মৌসুমি চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্বামী পায়েলের কাস্টিডির জন্য আদালতে মামলা করেছিলেন। তাঁদের মূল বক্তব্য ছিল, পায়েলের দেখাশুনো একেবারেই করতেন না স্বামী ডিকি সিনহা। এমনকি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরেও পায়েলের দেখভাল করা বন্ধ করে দিয়েছিলেন স্বামী ডিকি সিনহা।

উল্লেখ্য, ছোট থেকেই ডায়বেটিসের সমস্যা ছিল মৌসুমি কন্যার। ২০১৭ সালে তাঁকে প্রথম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল এবং বাড়িতে নিয়ে আসা হলে তাঁর চিকিৎসা বন্ধ করে দেন ডিকি সিনহা, এমনই অভিযোগ করেন মৌসুমি চট্টোপাধ্যায়। তবে পায়েলের আচমকা মৃত্যুর খবরে ভেঙে পড়েছেন বন্ধু অভিনেতা তুষার কাপুর। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি জানান, একসময় তিনি পায়েলের সঙ্গে খেলা করতেন। ছোটবেলায় তাঁরা একে অপরের ভাল বন্ধু ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here