মহানগর ওয়েবডেস্ক: ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ সিং কে তুমুল আক্রমণ করে ‘অভব্য’  আচরণের জন্য রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড হওয়া আট সাংসদের একজন সিপিআই–এম এর কে কে রাগেশ একটি খোলা চিঠি লিখলেন। সংসদ ভবনের চত্বরে প্রতিবাদে সারা রাত ধর্নায় বসা সাংসদদের জন্য চা নিয়ে আসায় ডেপুটি চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানিয়ে রাগেশ চিঠিতে জানিয়েছেন, চমক দিয়ে বারবার মানুষকে ঠকানো যায় না। সবর্বদলের প্রতি সমদৃষ্টি রক্ষা করার পদটি গ্রহণ করে হরিবংশ সিং আসলে ভণ্ডামি করছেন বলে মন্তব্য করেন সিপিআই–এম সাংসদ।

প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করতেই রাজ্যসভায় বিরোধীদের মতামত ডেপুটি চেয়ারম্যান উপেক্ষা করেছেন কিনা জানতে চেয়ে চিঠিতে সাংসদ লিখেছেন,’’এটা অত্যন্ত আশ্চর্যের যে আপনার মতো একজন মানুষ যিনি নিজেকে সমাজবাদী বলে দাবি করেন, তিনি রাজনৈতিক সমদর্শিতাকে উপেক্ষা করে এইরকম একটা ভণ্ডামি করলেন।‘’ রাজ্যসভায় বিতর্কিত কৃষি বিল নিয়ে বিরোধীদের আলোচনা ও ভোটাভুটির দাবিকে প্রত্যাখ্যান করায় ডেপুটি চেয়ারম্যান বিরোধীদের আক্রমণের কেন্দ্রে রয়েছেন গত রবিবার থেকেই।

রাজ্যসভায় বিরোধীদের দাবি চেয়ারম্যান প্রত্যাখ্যান করলে তুমুল প্রতিবাদ শুরু হয়। বিলের প্রতিলিপি ছিঁড়ে, টেবিলের মাইক উপড়ে বিরোধী সাংসদরা হট্টগোল বাঁধিয়ে দেন বলে অভিযোগ। কয়েকজন সদস্যকে ডেপুটি চেয়ারম্যানের দিকে তেড়ে যেতেও দেখা যায়। এই সবের মধ্যেই কোনও ভাবে সাংসদ কেকে রাগেশ আহত হন।

২৩ সেপ্টেম্বর তারিখে লেখা চিঠিতে কেকে রাগেশ হরিবংশ সিং এর আচরণকে সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ডেপুটি চেয়ারম্যানের উচিত ছিল বিলটি ভোটাভুটির জন্য সংসদে পেশ করা। তিনি জানতে চেয়েছেন, ডেপুটি চেয়ারম্যান কি ট্রেজারি বেঞ্চ দ্বারা প্রভাবিত হয়ে বিরোধীদের উপেক্ষা করলেন? ‘’বিরোধীদের প্রবল আপত্তি সত্ত্বেও বিলটি পাশ করিয়ে আপনি যে নিরপেক্ষতাকে অসম্মানিত করলেন সে কি প্রধানমন্ত্রীর নেকনজরে থাকার জন্য?’’

ডেপুটি চেয়ারম্যানও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ও উপ রাষ্ট্রপতি তথা রাজ্যসভার চেয়ারম্যান ভেঙ্কাইয়া নাইডুকে লেখা চিঠিতে জানিয়েছিলেন, সংসদ কক্ষে বিরোধীদের আক্রমণে তিনি এতটাই  যন্ত্রণা পেয়েছেন যে তিনি একদিন উপবাসের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিরোধীদের হাতে তিনি আক্রান্ত হয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন ডেপুটি চেয়ারম্যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here