ভুল করেছি! মনিরুলকে বিজেপিতে টানার প্রসঙ্গে বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি মুকুলের

0
70

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বীরভূম লাভপুরের বিধায়ক মনিরুল ইসলামকে বিজেপিতে সামিল করার পর থেকেই ‘খারাপ সময়’ শুরু হয়েছে মুকুল রায়ের। দলের অন্দরে বিরুদ্ধভাব এত বড় আকার ধারণ করেছে যে বিজেপির অন্দরে ক্রমশ কোণঠাসা হয়ে গিয়েছেন মুকুল রায়। দলবদলের দায়িত্ব থেকে ‘অব্যাহতি’ দেওয়া হয়েছে। এমনকী নিরাপত্তাও কাটছাঁট করে দেওয়া হয়েছে। শেষ পর্যন্ত মুকুল নিজেও ‘ভুল’-এর কথা স্বীকার করেই নিলেন। সূত্রের খবর, সম্প্রতি দুর্গাপুরে অনুষ্ঠিত হওয়া চিন্তন বৈঠকে মনিরুল ইসলামকে নিয়ে নিজের ভুলের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন মুকুল রায়।

শুধু ভুল তো নয়। মহাভুলের মাধ্যমে যেন আত্মঘাতী গোলটাই করে বসেছিলেন মুকুল। যে মনিরুল প্রকাশ্যে ‘হিন্দু বিরোধী’ মন্তব্যের জন্য খ্যাত, সেই ব্যক্তির বিজেপিতে সামিল হওয়া মেনে নিতে পারেননি কেউ। তৃণমূল স্তরের কর্মী থেকে শুরু করে রাঘব বোয়াল নেতারা। সবার রোশ গিয়ে পড়েছিল মুকুলেরই ওপর। কারণ যেসব নেতাদের বিরুদ্ধে ভোট দিয়ে বিজেপিকে ১৮টি আসন সমর্থকরা তুলে দিয়েছেন, তাদেরই দলে টেনে কর্মীদের মনোবলটাই ভেঙে দিচ্ছেন মুকুল। অভিযোগের তালিকা আরও লম্বা রয়েছে বঙ্গ রাজনীতির ‘চাণক্য’-র বিরুদ্ধে। উত্তর ২৪ পরগনার অনেক কাউন্সিলরই মুকুলের নেতৃত্বে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু দিনকয়েক পরেই সুড়সুড় করে সবাই ফিরে আসেন তৃণমূলে। ফলে নিজের জেলাতেই কার্যত মুণ্ডুপাত হয় মুকুলের। এছাড়াও আরও বহু তৃণমূলী ভেঙে এনে বিজেপির কাঠামোটাই নষ্ট করে দেওয়ার চেষ্টারও অভিযোগও রয়েছে।

সব মিলিয়ে নানা অভিযোগে বিদ্ধ হয়ে কিছুটা ব্যাকফুটেই চলে গিয়েছিলেন একদা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেকেন্ড ইন কমান্ড। যার ফলস্বরূপ নানা ‘শাস্তি’ও পেতে হয়েছে মুকুলকে। এই নিয়ে চিন্তন বৈঠকে মুকুল স্বীকার করে নেন, রাজ্য নেতৃত্বের অনুমতি ছাড়া মনিরুলকে দলে নিয়ে ভুল করেছেন তিনি। আবার আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন, পরের বার থেকে এই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়ার আগে দলের সঙ্গে পরামর্শ করে তবেই নেবেন। তবে ভাঙলেও পুরোপুরি মচকে যাননি মুকুল। দাবি করেছেন, কাউকে আঘাত দেওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে এ কাজ করেননি তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here