kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বঙ্গ রাজনীতিতে তার বুদ্ধিমত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে না কেউ। অলিখিতভাবে তার নামের আগে জুড়ে গিয়েছে ‘চাণক্য’ শব্দটি। যদিও ইন্দ্রজিতের মত মেঘের আড়াল থেকেই যুদ্ধ করতে পছন্দ করেন তিনি। ভোটের ময়দানে প্রার্থী হিসেবে মাঠে নামলে ফলাফল খুব একটা সুবিধার হয় না মুকুল রায়ের। এহেন মুকুল রায় এবার নামতে চলেছেন নির্বাচনী ময়দানে। তবে বঙ্গ নয়, বিজেপি শাসিত রাজ্য উত্তর প্রদেশ থেকে। এমনটাই জানা যাচ্ছে সংবাদমাধ্যম সূত্রে। আগামী ১১ সেপ্টেম্বর উত্তর প্রদেশে রাজ্যসভার একটি আসনে উপনির্বাচনের দিন স্থির করেছে নির্বাচন কমিশন। সেখানেই একাধিক নামের পাশাপাশি উঠে আসছে বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়ের নাম।

জানা গেছে, গত ১ আগস্ট উত্তরপ্রদেশের সমাজবাদী পার্টির নেতা অমর সিংয়ের মৃত্যুর কারণে খালি হয় যোগী রাজ্যের একটি রাজ্যসভা আসন। ২০২২ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত এই আসনের মেয়াদ রয়েছে। ফলে দেরী না করে তড়িঘড়ি ওই আসনে উপনির্বাচন সেরে ফেলতে চাইছে নির্বাচন কমিশন। এদিকে যোগীর নেতৃত্বে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভার বর্তমান যা অবস্থা তাতে এই আসনে বিজেপির এককথায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় নিশ্চিত। জানা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের এই আসনটিতে একাধিক নামের পাশাপাশি জল্পনা চলছে ‘মুকুল রায়’ নামটিকে নিয়েও। অনুমান করা হচ্ছে একদা তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ও বর্তমান রাজ্য বিজেপির নেতা মুকুল রায়কেই এখানে রাজ্যসভার টিকিট দিতে চলেছে কেন্দ্রের শাসক দল। যদিও সরাসরি এ বিষয়ে মুখ খোলেননি কোনও বিজেপি নেতা।

এদিকে মুকুল রায়কে উত্তর প্রদেশ থেকে জিতিয়ে আনার যে পরিকল্পনা চলছে তার পিছনে রয়েছে বঙ্গ রাজনীতির এক গোপন খেলা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অনুমান, বঙ্গ রাজনীতিতে বিজেপির উত্থানের পেছনে মুকুল রায়ের ভূমিকা ব্যাপক তা অস্বীকার করার কোনও জায়গা নেই। তবে সাম্প্রতিক সময়ে দলীয় কোন্দল বড় ভাবে দেখা দিচ্ছে রাজ্য বিজেপিতে। বঙ্গ বিজেপি ভাগ হয়েছে দুটি শিবিরে। একটি দিলীপ শিবির অন্যটির মুকুল। এই পরিস্থিতি সামাল দিতেই ধীরে ধীরে মুকুলকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অন্য পথে। পাশাপাশি আরও যে একটি তথ্য উঠে আসছে এক্ষেত্রে। তা হল, করোনা পরিস্থিতিতে আটকে থাকলেও শীঘ্রই মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ হবে কেন্দ্রে। সেখানে বেশ কিছু নতুন মুখ তুলে আনতে ইচ্ছুক কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব। আর বঙ্গে যেহেতু বিধানসভা নির্বাচন আসন্ন সেহেতু মুকুল রায়কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী করলে কিছুটা বাড়তি সুবিধা পাওয়া যাবে বঙ্গবাসীর মন পাওয়ার চেষ্টায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here