ডেস্ক: সামনেই লোকসভা নির্বাচন। কিন্তু তার আগেই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ল বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের। গ্রেফতার করা হল তাঁরই দুই ঘনিষ্ঠকে। ধৃতদের নাম রাজু সরকার এবং সুরজিত মাহাত। কলকাতা পুলিশ দিল্লি থেকে তাঁদের গ্রেফতার করেছে বলে জানা গিয়েছে। এদিকে এই ঘটনার পরেই মুকুল রায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা পরায়ণতার অভিযোগ তুলেছেন। আগামী লোকসভা নির্বাচনের দিকে লক্ষ্য রেখে রাজ্য বিজেপির এক গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হয়েছে মুকুলকে। যেনতেন প্রকারে টার্গেট উনিশ মমতা ফিনিশ মিশনকে কার্যকর করার ব্রত পালন করেছে বিজেপি। যতটা সম্ভব তত বেশি আসন লাভ করতে চায় বিজেপি সরকার।

এর আগে দলত্যাগী নেতার সঙ্গে মন্ত্রী নেতাদের যে ভিতরে ভিতরে একটা যোগাযোগ রয়েছে তাএক দলীয় বৈঠকে জানিয়ে দিয়েছিলেন মমতা। মুকুল ঘনিষ্ঠ এই দুই নেতার গ্রেফতার হওয়ার ঘটনায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল মনে করছে যে, বিজেপি এবং মুকুলের ওপর চাপ তৈরি করতেই মমতা এই খেলাটা খেলল। তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও বহু মুকুল অনুগামীদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে মুকুল সাফ জানিয়ে দেয়, এরকমভাবে তাঁকে বা তাঁর দলকে দমিয়ে রাখা যাবে না। অন্যদিকে তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে আরও বলেন, মমতা প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে আমার বিরুদ্ধে ২৭টি মামলা দায়ের করেছে। এর মধ্যে খুনের মামলাও রয়েছে। ছেলে শুভ্রাংশুর তৃণমূলে থাকা নিয়ে মুকুলকে প্রশ্ন করা হলে তিনি সাফ জানিয়ে দেন যে, শুভ্রাংশু একজন সাবালক। কোনটা ঠিক কোনটা ভুল সেটা বোঝার ক্ষমতা তাঁর রয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here