kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, নদিয়া: তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর এখনও কোনও বড় পদ পাননি মুকুল রায়। এই নিয়ে প্রকাশ্যে তার কোনও ক্ষোভ না থাকলেও মাঝে মাঝে তিনি চর্চায় আসেন। বিজেপির সঙ্গে তাঁর দূরত্ব তৈরি হয়েছে বলে প্রায়ই শোনা যায়। সেই মুকুল রায়কে পাশে বসিয়ে আবার তাঁর ‘গুরুদায়িত্বের’ কথা মনে করিয়ে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের বিজেপির দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। শুক্রবার নদিয়ার চাকদায় বিজেপি যুব মোর্চার এক সভায় মুকুল রায়কে পাশে নিয়ে হাজির ছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

ওই সভায় তিনি বলেন, ‘মুকুল রায় হলেন এই বাংলার সেই রাজনৈতিক ব্যক্তি যিনি একার পরিশ্রমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসান। সেই মুকুল রায় আজ প্রতিজ্ঞা করেছেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর চেয়ার থেকে টেনে নামাবেন বলে।‘

এরপর তিনি বিজেপি রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমাদের দলের যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ একসময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন। যুব তৃণমূলের গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। কিন্তু সেখানে তিনি দেখেন, গরুচোর আছেন, কয়লা চোর আছেন, দুর্নীতিগ্রস্ত নেতারা আছেন। সেই সব দেখে তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছেন। এখন নবান্নর এক একটা ইট হেলিয়ে দেওয়ার জন্য তিনি আন্দোলন জারি রেখেছেন।‘

৮ অক্টোবর ‘গণতন্ত্র বাঁচাও’ দাবিতে নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির যুব মোর্চা। এই নিয়ে শুক্রবার নদিয়ার চাকদা চৌরাস্তায় একটি সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, বিজেপি নেতা মুকুল রায়, যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, শুভ্রাংশু রায়-সহ বিজেপি নেতৃত্ব। সভায় ভালই ভিড় হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here